kalerkantho

শনিবার । ৩১ আশ্বিন ১৪২৮। ১৬ অক্টোবর ২০২১। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

খরায় আম ঝরে পড়ছে সাপাহারে

সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি   

১ মে, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বৈরী আবহাওয়ায় খাঁ খাঁ করছে বরেন্দ্র অঞ্চলের মাঠ-ঘাট, নদী-নালা। এই খরায় আম ঝরে পড়ায় হতাশ হয়ে পড়েছেন নওগাঁর সাপাহারের চাষিরা। ক্রমবর্ধমান উৎপাদনের মাধ্যমে এরই মধ্যে আমের বাণিজ্যিক রাজধানী হিসেবে পরিচিতি পাওয়া নওগাঁর অন্য উপজেলাগুলোতেও দেখা দিয়েছে একই অবস্থা। কৃষি কর্মকর্তারাও বলছেন, চলতি খরা দীর্ঘায়িত হলে আমের অপূরণীয় ক্ষতি হবে।

সাপাহার উপজেলা কৃষি উপসহকারী কর্মকর্তা (উদ্ভিদ সংরক্ষণ) আতাউর রহমান সেলিম জানান, প্রায় আট হাজার ২৫০ হেক্টর জমিতে বিভিন্ন জাতের আমের বাগান আছে সাপাহারে। বিপুল পরিমাণ জমিতে চাষাবাদ হওয়ায় এবার রেকর্ড আম উৎপাদনের প্রত্যাশা করা হয় মৌসুমের শুরুতে। তবে তাতে বাদ সেধেছে তীব্র খরা। প্রতিকূল আবহাওয়ায় আমের বেড়ে ওঠা যেমন থমকে গেছে, তেমনই মাটিতে রস না থাকায় নির্বিচারে ঝরে পড়ছে আম। উপজেলা কৃষি দপ্তরের পরামর্শ অনুযায়ী অনেক চাষি গাছে শুধু পানি স্প্রে করছে। বরেন্দ্র অঞ্চলে তেমন সেচ সুবিধা না থাকায় বেশির ভাগ বাগানের মালিক এখন প্রকৃতির দিকে চেয়ে আছেন।

সাপাহারের জয়পুর গ্রামের আম চাষি তছলিম উদ্দীন, ওমর আলী, শাহা পাড়ার প্রদীপ সাহা, পিছল ডাঙ্গা গ্রামের মুমিনুল হক, দেলোয়ার হোসেন, মাহাবুর রহমান, জবই গ্রামের শাহজান আলী জানান, খরা আরো কয়েক সপ্তাহ বিরাজ করলে প্রতিটি বাগানের প্রায় ৮০ শতাংশ আম ঝরে পড়বে।



সাতদিনের সেরা