kalerkantho

শুক্রবার । ১১ আষাঢ় ১৪২৮। ২৫ জুন ২০২১। ১৩ জিলকদ ১৪৪২

রবির সিইওর প্রশ্ন

মদ-তামাকের চেয়ে মোবাইল অপারেটরদের কর বেশি কেন

বিশেষ প্রতিনিধি   

২৯ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মোবাইল অপারেটরদের ওপর চলমান ন্যূনতম করহার বেশি হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন রবি আজিয়াটার  ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মাহতাব উদ্দিন আহমেদ। তিনি বলেন, ‘মদ ও তামাক স্বাস্থ্যের জন্য এবং কয়লাবিদ্যুৎ কেন্দ্র পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর, অথচ এসবের থেকে মোবাইল অপারেটরদের ওপর করের পরিমাণ বেশি।’ ২০২১-২২ অর্থবছরের আসন্ন বাজেট সামনে রেখে এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে গতকাল বুধবার এই মন্তব্য করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে মাহতাব উদ্দিন অভিযোগ করেন, এর আগেও মোবাইল অপারেটররা অতিরিক্ত কর আরোপের বিষয়ে সরব হয়েছে, কিন্তু সুফল মেলেনি। বর্তমানে রবির কার্যকর করপোরেট করহার ৮৯ শতাংশ। অর্থাৎ  ১০০ টাকা মুনাফা করলে ৮৯ টাকাই আয়কর দিতে হচ্ছে সরকারকে।

তিনি জানান, ২০২০ সালে রবি সাত হাজার ৫৬৪ কোটি টাকা রাজস্ব আয় করে। এর মধ্যে চার হাজার ২৩৬ কোটি টাকা যায় সরকারের কোষাগারে, যা মোট আয়ের প্রায় ৫৬ শতাংশ। বিভিন্ন ধরনের কর, মাসুল ও তরঙ্গ ইজারার মূল্য বাবদ এসব অর্থ দিতে হয়। বিপুল বিনিয়োগের পরও গত বছর প্রতিষ্ঠানটির মুনাফা ছিল মাত্র ১৫৫ কোটি টাকা।

করারোপে বৈষম্য বিষয়ে মাহতাব উদ্দিন বলেন, সেবা বিক্রি করে পাওয়া মোট টাকার ওপর ২ শতাংশ হারে আয়কর দিতে হচ্ছে। এই হার মদ বিক্রেতাদের ওপর ০.৬ শতাংশ, তামাকে ১ শতাংশ ও কয়লাবিদ্যুৎ কেন্দ্রে ০.৫ থেকে ০.৬ শতাংশ।