kalerkantho

রবিবার । ৬ আষাঢ় ১৪২৮। ২০ জুন ২০২১। ৮ জিলকদ ১৪৪২

বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা

বরিশাল অফিস   

২৩ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে এক তরুণীকে ধর্ষণ এবং গর্ভপাত ঘটানোর অভিযোগে বরিশাল মহানগর ছাত্রলীগ সভাপতি জসিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। জসিমের বিয়ের এক দিন পর গত সোমবার রাতে বরিশাল মেট্রোপলিটন এয়ারপোর্ট থানায় ওই তরুণী ধর্ষণের লিখিত অভিযোগ করেন। প্রাথমিক তদন্তে সত্যতা মেলার পর বুধবার রাতে মামলাটি এজাহারভুক্ত করা হয়।

অভিযুক্ত জসিম উদ্দিন বরিশাল নগরের সাগরদী এলাকার মো. শুক্কুর আলীর ছেলে। মামলার বিষয়ে জসিমের ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলে সেটি বন্ধ পাওয়া যায়। তবে সোমবার তিনি কালের কণ্ঠকে বলেছিলেন, রবিবার অভিভাবকদের পছন্দের মেয়েকে তিনি বিয়ে করেন। এর পরই অজ্ঞাত কারণে তাঁর ওই তরুণী আত্মীয় তাঁর বিরুদ্ধে ধর্ষণের মিথ্যা অভিযোগ তুলেছেন। রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ তাঁকে ফাঁসাতে ওই তরুণীকে দিয়ে মিথ্যা অভিযোগ করিয়েছে।

এয়ারপোর্ট থানার ওসি কমলেশ চন্দ্র হালদার বলেন, ‘জসিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে অভিযোগে জেনারেল হাসপাতালের যে চিকিৎসককে দিয়ে তরুণীর গর্ভপাত করানো হয়েছে, তার তথ্যে গরমিল ছিল। পরে তরুণী সঠিক তথ্য দেওয়ায় এবং আমরা অভিযোগে প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় মামলাটি এজাহারভুক্ত করেছি। জসিমকে গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে। অন্যদিকে অভিযোগকারী তরুণীকে অসুস্থতার কারণে মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য পাঠানো সম্ভব হয়নি।’

এজাহারে তরুণী উল্লেখ করেন, তিন বছর আগে আত্মীয় জসিম কৌশলে তাঁর মোবাইল ফোন নম্বর নেন। এরপর প্রায়ই তিনি ফোন দিতেন। পরে তাঁরা দেখা করলে জসিম তাঁকে প্রেমের প্রস্তাব দেন। তিনি রাজি না হলে বিয়ের কথা বলে প্রেমের সম্পর্ক গড়েন। ২০১৯ সালের ১০ সেপ্টেম্বর জসিম ফোন দিয়ে জানতে পারেন তাঁর বাসায় কেউ নেই। এ সুযোগে জসিম তাঁর বাসায় গিয়ে তাঁকে একা পেয়ে ধর্ষণ করেন। এতে তিনি গর্ভবতী হয়ে পড়েন। পরে জসিম বরিশাল জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে তাঁর গর্ভপাত করান। এরপর একাধিকবার তাঁকে ধর্ষণ করেন জসিম। কিন্তু বিয়ের জন্য চাপ দিলে এড়িয়ে যেতে থাকেন তিনি। সম্প্রতি জসিম অভিভাবকদের পছন্দের মেয়েকে বিয়ে করেছেন।