kalerkantho

সোমবার । ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৭ মে ২০২১। ০৪ শাওয়াল ১৪৪

নাটোরে স্থানীয়দের সহযোগিতা চায় ভারতীয় কিশোর

নাটোর প্রতিনিধি   

২০ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



অপরিচিত এক কিশোর বর্তমানে নাটোরের বাগাতিপাড়া উপজেলার লোকমানপুর রেলস্টেশনে অবস্থান করছে। তার বাড়ি ভারতের পশ্চিমবঙ্গে বলে জানায়। এক সপ্তাহ ধরে তাকে সেখানে দেখা যাচ্ছে। সে জানায়, তার নাম তামিম খান। পড়াশোনা করে সপ্তম শ্রেণিতে। সে কথা বলতে কিংবা চলাফেরা করতে পারে না, শুধু লিখতে জানে। তার বাড়ি ভারতের মেদিনীপুরে। বাবার নাম বিল্লাল খান। তার মা মারা যাওয়ার পর তার বাবা দ্বিতীয় বিয়ে করেন। সম্প্রতি তার বাবাও মারা যান। এরপর থেকে তার সত্ভাইয়েরা তাকে নির্যাতন করত। সে আরো দাবি করেছে, ভাইয়েরা তাকে তরল কোনো একটা কিছু খাওয়ানোর পর থেকে সে হাঁটতেও পারে না, কথাও বলতে পারে না। তরল খাওয়ানোর পর সে আর কিছু জানে না। এরপর সে নিজেকে এই স্টেশনে দেখে। লোকমানপুরের স্থানীয় এক তরুণ আশরাফুল জানান, গত ১০ তারিখে রেলস্টেশনের নিচের রাস্তায় পড়ে থাকতে দেখা যায় তাকে। পরনের পোশাক দেখে ধনাঢ্য ঘরের সন্তান বলেই মনে হয় তার। স্থানীয় কয়েকজন ছেলেটিকে গোসল করায় ও প্রাথমিক চিকিৎসাও দেয়। এরপর সে লিখে তার পরিচয় জানায়। রেলস্টেশনের শারীরিক প্রতিবন্ধী কালু মণ্ডল জানান, ‘আমি হুইলচেয়ারে চলাফেরা করি। তেমন আর্থিক সংগতি নেই। তবু ছেলেটির মুখের দিকে তাকিয়ে ঠিক থাকতে পারিনি। আমার জমানো টাকা দিয়ে ওকে একটা হুইলচেয়ার কিনে দিয়েছি।’ নিজ দেশে ফিরতে চায় কি না জানতে চাইলে তামিম জানায়, দেশে গেলে তাকে মেরে ফেলা হবে। তাই সে এখানকার মানুষের সহযোগিতায় বেঁচে থাকতে চায়। তার দাবি, সে সম্পূর্ণ সুস্থ ছিল। চিকিৎসা পেলে সে পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠবে।