kalerkantho

সোমবার । ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৭ মে ২০২১। ০৪ শাওয়াল ১৪৪

১৪ বছর পর ফুটল ফুল

পানছড়ি (খাগড়াছড়ি) প্রতিনিধি   

১৭ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



১৪ বছর পর ফুটল ফুল

মণিরাজ ফুল ► খাগড়াছড়ির পানছড়ি উপজেলার মনচন্দ্র চাকমার বাড়িতে ফুটেছে এই ফুল। ছবি : কালের কণ্ঠ

ফুলের নাম মণিরাজ। বাড়ির মালিকের নাম মনচন্দ্র চাকমা। গ্রামের নাম মণিপাড়া। খাগড়াছড়ির পানছড়ি উপজেলায়।

মনচন্দ্র জানান, তাঁর বয়স ৭৫ বছর। প্রায় ১৪ বছর আগে পানছড়ি বাজার থেকে ২৫ টাকায় কিনেছিলেন গাছটি। এবারই প্রথম ফুল ফুটেছে। জীবনে তিনি প্রথম মণিরাজ ফুটতে দেখলেন। ফুলটির প্রকৃত নাম সাইকাস। ফুলগুলো সাপের ফণার মতো দেখা যায় বলে সাপুড়েরা এই গাছকে মণিরাজ বলে থাকে। এই গাছ দুষ্প্রাপ্য না হলেও ফুল দুষ্প্রাপ্য। সব গাছে ফুল ফোটে না। শুধু মা গাছই ফুল দেয়। তাও গাছের বয়স এক যুগ পার হলে। তাই এর ফুল ফোটাকে সৌভাগ্য হিসেবে বিবেচনা করা হয়। একটি পূর্ণবয়স্ক গাছের ঠিক মাথার মধ্যে গোলাকার দৃষ্টিনন্দন মোচা বের হয়। মোচা থেকে ফুলটি ফোটার পর প্রথমে সাদা রঙের থাকলেও দিনে দিনে এটি খয়েরি রং ধারণ করে। এভাবে প্রায় দুই মাস থাকে ফুলটি। ফুল থেকে যে ফল হয় তা দেখতে বড় কাঁঠাল আকৃতির। যা কিছুটা শরিফা ফলের মতো ছোট ছোট কোষে ভাগ করা। তবে সহজে একটা থেকে অন্য কোষ আলাদা করা যায়। এটা পেট ব্যথা, দাঁত ব্যথা, কাটা-ছেঁড়া, স্তন ব্যথা, পাতলা পায়খানা, সাপের দংশনসহ নানা রোগের প্রতিষেধক হিসেবে কাজ করে বলে স্থানীয়রা জানায়।