kalerkantho

শুক্রবার। ৩১ বৈশাখ ১৪২৮। ১৪ মে ২০২১। ০২ শাওয়াল ১৪৪২

মুভমেন্ট পাস

ওয়েবসাইটে ৪৬ ঘণ্টায় ১৬ কোটি ‘হিট’

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৬ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কঠোর বিধি-নিষেধের লকডাউনে ঘর থেকে জরুরি প্রয়োজনে বের হতে পুলিশের চালু করা মুভমেন্ট পাস নিয়ে রীতিমতো হুলুস্থুল কাণ্ড চলছে। গত মঙ্গলবার চালু হওয়ার পর ৪৬ ঘণ্টায় মুভমেন্ট পাসের ওয়েবসাইটে ‘হিট’ করা হয়েছে প্রায় ১৬ কোটি বার। এর মধ্যে আবেদনের নিবন্ধন করেছেন চার লাখ ৯৭৭ জন। এঁদের মধ্যে তিন লাখ ১৬ হাজার ৮০১ জনকে পাস দেওয়া হয়েছে।

এদিকে চিকিৎসক-সাংবাদিকসহ করোনাকালের সম্মুখযোদ্ধা পেশাজীবীদের অনেকে মুভমেন্ট পাস না নেওয়ার কারণে হয়রানির শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এমন পরিস্থিতিতে গতকাল বৃহস্পতিবার লকডাউনের দ্বিতীয় দিনেই ঢাকা শহরে পুলিশের তল্লাশি অনেকটা ঢিলেঢালা দেখা গেছে।

পুলিশ সদর দপ্তরের সহকারী মহাপরিদর্শক (মিডিয়া) সোহেল রানা জানান, উদ্বোধনের পর মঙ্গলবার সকাল ১১টা থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত মুভমেন্ট পাসের ওয়েবসাইটে ১৫ কোটি ৯৯ লাখ ২২ হাজার ৬৫টি হিট বা নক করা হয়েছে। অর্থাৎ প্রতি মিনিটে ৫৭ হাজার ৯৪২টি হিট করা হয়েছে। জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘জরুরি কাজে নিয়োজিত পেশাজীবীরা পরিচয়পত্র দেখালেই চলবে। তাঁদের মুভমেন্ট পাস লাগবে না।’

যাঁদের মুভমেন্ট পাস লাগবে না : যেসব পেশাজীবী জরুরি পেশায় নিয়োজিত আছেন এবং যাঁরা করোনাকালে সম্মুখযোদ্ধা হিসেবে এরই মধ্যে স্বীকৃতি পেয়েছেন তাঁদের পেশাগত পরিচয়পত্র মুভমেন্ট পাস হিসেবে বিবেচিত হবে। তবে তাঁরা তল্লাশিতে নিজেদের পরিচয়পত্র দেখাতে সহায়তা করবেন। এ ধরনের পেশাজীবীরা হলেন চিকিৎসা (চিকিৎসক, নার্স, চিকিৎসা ও কভিড টিকায় সংশ্লিষ্ট স্টাফ), ব্যাংকিং (ব্যাংকার ও ব্যাংক স্টাফ), গণমাধ্যম (সাংবাদিক ও ক্যামেরাম্যান), শিল্প-কারখানা বা গার্মেন্ট উৎপাদনে জড়িত কর্মী বা কর্মকর্তা, বিদ্যুৎ, পানি, গ্যাস ও জ্বালানির সঙ্গে জড়িত ব্যক্তি বা কর্মকর্তা, টেলিফোন বা ইন্টারনেট ও ডাক বিভাগের সরকারি সেবাকর্মী, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য, ফায়ার সার্ভিস, অফিসগামী সরকারি কর্মকর্তা এবং বন্দরসংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা বা কর্মচারী।