kalerkantho

শনিবার । ২৫ বৈশাখ ১৪২৮। ৮ মে ২০২১। ২৫ রমজান ১৪৪২

সালথায় সহিংসতা

পুরুষশূন্য গ্রামে ফসলের মাঠে নারী-শিশুরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর   

১৬ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ফরিদপুরের সালথা উপজেলার পুরুষশূন্য গ্রামগুলোতে জমিতে কাজ করছে নারী ও শিশুরা। চলতি মাসের ৫ তারিখে উপজেলা পরিষদসহ বিভিন্ন সরকারি দপ্তরে হামলা ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় করা মামলায় গ্রেপ্তার এড়াতে গ্রাম ছেড়েছেন পুরুষরা। এ পরিস্থিতিতে ফসলের মাঠে কাজে হাত দিয়েছেন নারীরা। 

জানা গেছে, উপজেলার সোনাপুর, ভাওয়াল ও রামকান্তপুর গ্রাম কার্যত পুরুষশূন্য। এসব এলাকার ফসলের মাঠে পেঁয়াজ, রসুন, পাটসহ বিভিন্ন ফসল দেখা যায়। ফসলের পরিচর্যা করতে মাঠে নেমেছে নারী ও শিশুরা। সেদিনের সহিংসতার ঘটনায় পাঁচটি মামলায় এজাহারভুক্ত ২৬১ জনসহ প্রায় ১৭ হাজারের বেশি মানুষকে আসামি করা হয়েছে।

এলাকার একজন নারী জানান, তাঁদের হাতে বাজার করার টাকা নেই। তাঁর দিনমজুর স্বামী পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। রোজায় প্রয়োজনীয় বাজার করতে পারছেন না তাঁরা। পাটক্ষেত পরিচর্যায় ব্যস্ত এক নারী জানান, অজ্ঞাতপরিচয় আসামি রয়েছে অনেক। সে কারণে দোষী-নির্দোষী সবাই পলাতক।

আলেয়া বেগম নামের এক নারী বলেন, ‘এনজিওর কিস্তিতে ফসল করি আমরা। এ বছর ধান নষ্ট হয়ে গেছে। এখন যদি ঠিকমতো পাট চাষ না হয় তাহলে আমাদের বেঁচে থাকাই কষ্টকর। এর মধ্যে আবার লকডাউন। ’

এ বিষয়ে জেলার পুলিশ সুপার মো. আলিমুজ্জামান বলেন, ‘পুলিশ কাউকে হয়রানি বা গ্রেপ্তার করছে না। সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ও গোয়েন্দা প্রতিবেদন এবং  সিসিটিভির ফুটেজ দেখে দোষীদের শনাক্ত করা হচ্ছে।’

উল্লেখ্য, করোনা মহামারিতে লকডাউনকে কার্যকর করতে প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের এলাকা পরিদর্শনের সময় বিভিন্ন সরকারি অফিসে হামলা চালায় উত্তেজিত জনতা। এ ঘটনায় দুই যুবক  নিহত হন।



সাতদিনের সেরা