kalerkantho

রবিবার। ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৬ মে ২০২১। ০৩ শাওয়াল ১৪৪২

তিন মাসে ৬ মাদরাসাছাত্র বলাৎকারের শিকার

ওয়েবিনারে এমজেএফ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৬ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত তিন মাসে দেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আটজন ছাত্র-ছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে। এর মধ্যে ছয়জনই মাদরাসার ছেলে শিক্ষার্থী। একই সময়ে আরো ১২ জন শিক্ষার্থী যৌন নিপীড়নের শিকার হয়েছে। এ ছাড়া মাদরাসা ও সেইফ হোমে ২১ শিশু শিক্ষার্থীকে শারীরিক নির্যাতন করা হয়। উল্লিখিত সময়ে স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকলেও মাদরাসাগুলো খোলা ছিল।

গতকাল বৃহস্পতিবার মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন (এমজেএফ) আয়োজিত এক ওয়েবিনারে এসব তথ্য জানানো হয়। ৯টি জাতীয় দৈনিক পত্রিকা থেকে এসব তথ্য নেওয়া হয়েছে।

‘শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিশু নির্যাতন ও যৌন হয়রানি বন্ধে করণীয়’ শীর্ষক ওয়েবিনারে বক্তারা বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে, বিশেষ করে কওমি ধারার মাদরাসায় নজরদারি না থাকায় একদিকে যেমন যৌন নিপীড়নসহ নানা ধরনের নির্যাতন বৃদ্ধি পাচ্ছে, অন্যদিকে পাড়ায় পাড়ায় ‘ব্যাঙের ছাতার’ মতো গজিয়ে ওঠা এসব প্রতিষ্ঠানে কী পড়ানো হচ্ছে, জাতীয় সংগীত বাজানো হচ্ছে কি না, সরকারি দিবসগুলো পালিত হচ্ছে কি না এবং সর্বোপরি এখানে পড়াশোনা করে ছাত্র-ছাত্রীরা কোথায় যাচ্ছে, এসব নিয়ে জাতীয় পর্যায়ে তেমন কোনো আলোচনা নেই।

বক্তারা আরো বলেন, মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের নিয়ন্ত্রণাধীনে না থাকায় কওমি মাদরাসায় ঠিক কী হচ্ছে এবং সেখানে নিপীড়ন বন্ধে কী পদক্ষেপ নেওয়া সম্ভব, তা স্পষ্ট নয়।

আলোচনায় অংশ নেন ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মুহাম্মদ আউয়াল হাওলাদার, মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের প্রকাশনা নিয়ন্ত্রক ড. অধ্যাপক রিয়াদ চৌধুরী এবং পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক সহযোগী অধ্যাপক কামাল উদ্দীন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. শাহনাজ হুদা, সহকারী পরিচালক মোশরাকুল আলম, রস্ক প্রজেক্ট এবং ব্রেকিং দ্য সাইলেন্সের রোকসানা সুলতানা। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন এমজেএফের নির্বাহী পরিচালক শাহীন আনাম। প্রতিবেদনটি উপস্থাপন করেন এমজেএফের প্রগ্রাম কো-অর্ডিনেটর অর্পিতা দাস।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই শাহীন আনাম বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যৌন হয়রানির বিষয়টি জবাবদিহি সংস্কৃতির আওতায় আনতে হবে। মা-বাবা বিশ্বাস করে তাঁদের শিশুকে শিক্ষাঙ্গনে পাঠান, সেখানে যদি এভাবে নিপীড়নের শিকার হয়, তা খুবই উদ্বেগের বিষয়।