kalerkantho

রবিবার । ২৬ বৈশাখ ১৪২৮। ৯ মে ২০২১। ২৬ রমজান ১৪৪২

রিকশাভ্যানে জন্ম হওয়া শিশুর মৃত্যু ছিটকে পড়ে

প্রসূতি মা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন

নীলফামারী প্রতিনিধি   

১৪ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নীলফামারীতে চলন্ত রিকশাভ্যানে জন্ম নিল শিশু। প্রসূতির সঙ্গে থাকা লোকজনের অগোচরে জন্ম নিয়েই সড়কে ছিটকে পড়ে মৃত্যুও হয়েছে ওই নবজাতকের। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর আড়াইটার দিকে জেলা শহরের পাঁচমাথা মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

রুবিনা আকতার (৩০) নামে প্রসূতি ওই মা জেলা সদরের চড়াইখোলা ইউনিয়নের যাদুরহাট বাড়াইপাড়া গ্রামের দিনমজুর মহুবার রহমানের স্ত্রী। তাঁকে নীলফামারী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। গাইনি ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন আছেন তিনি।

প্রত্যক্ষদর্শী কয়েকজন ব্যক্তি জানান, দুপুর আড়াইটার দিকে গর্ভবতী এক নারীকে ওই সড়ক দিয়ে রিকশাভ্যানে নীলফামারী জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছিল। এ সময় হঠাৎ করে নবজাতক পাকা সড়কের ওপর ছিটকে পড়ে। প্রত্যক্ষদর্শীদের চিৎকারে রিকশাভ্যানটি থামিয়ে স্বজনরা নবজাতককে তুলে নিয়ে হাসপাতালে যান।

রুবিনা আকতারের জা (দেবরের স্ত্রী) ফাতেমা বেগম (২৫) বলেন, ‘মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে রুবিনার প্রসব ব্যথা ওঠে। এ অবস্থায় গ্রামে রিকশাভ্যান পেতে কিছুটা সময় গড়িয়ে যায়। দুপুর ২টার দিকে একখানা অটোভ্যানে (ব্যাটারিচালিত) করে তাঁকে হাসপাতালে নেওয়ার জন্য রওনা দিই। রুবিনা আকতার আমার কোলে মাথা দেন। পেছনে রুবিনার এক বড় বোন ছিলেন। শহরের পাঁচমাথা অতিক্রম করার সময় স্থানীয় লোকজন চিৎকার করে জানায় বাচ্চা (নবজাতক) পড়ে গেছে বলে। আমি দ্রুত ভ্যান থেকে নেমে বাচ্চাটিকে কোলে নিয়ে হাসপাতালে যাই। এরপর কর্তব্যরত চিকিৎসক বাচ্চাটিকে দেখে মৃত ঘোষণা করেন।’

এ বিষয়ে কথা বললে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক মো. নুরুল হুদা বলেন, ‘বিকেল ৩টার দিকে প্রসূতি মা ও নবজাতককে নিয়ে আসেন তাঁর স্বজনরা। শিশুটি আঘাতজনিত কারণে হাসপাতালে নেওয়ার আগে মারা গেছে। তার মা রুবিনা আকতারের রক্তক্ষরণ হচ্ছে। তাই হাসপাতালে ভর্তি করে তাঁর চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।’



সাতদিনের সেরা