kalerkantho

মঙ্গলবার । ৮ আষাঢ় ১৪২৮। ২২ জুন ২০২১। ১০ জিলকদ ১৪৪২

রূপগঞ্জের পূর্বাচলে বাড়ছে ছিনতাই

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি   

১১ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার পূর্বাচলের তিন শ ফিট এলাকায় ছিনতাইয়ের ঘটনা বাড়ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। রাতের আঁধার নামলেই পথচারী, যাত্রী এবং যানবাহনের চালকরা ছিনতাইয়ের শিকার হওয়ার আতঙ্কে থাকেন। ওত পেতে থাকা ছিনতাইকারীচক্রের খপ্পরে পড়ে সাধারণ মানুষের অনেকেই নিঃস্ব হয়েছে। প্রশাসনের যথাযথ নজরদারি না থাকায় ছিনতাইকারীচক্র বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

চলতি এপ্রিল মাসে পূর্বাচল ১২ নম্বর সেক্টরের বুরুলিয়া এলাকার বেশ কয়েকজন ছিনতাইয়ের কবলে পড়েন। ঢাকার খিলক্ষেতের বড়ুয়া এলাকার মো. মফিজ উদ্দিনের ছেলে আব্দুস সাত্তার (৩৮) ও গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার বরগাঁওয়ের মোঃ তাইজ উদ্দিনের ছেলে ইসলাম মিয়া (৪৫) ছিনতাইয়ের ঘটনায় গত মঙ্গলবার রূপগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগে জানা যায়, মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে দুই ব্যবসায়ী আব্দুস সাত্তার ও ইসলাম মিয়া মোটরসাইকেলে বাড়ি ফিরছিলেন। তাঁরা রূপগঞ্জের ভোলানাথপুরের পূর্বাচলের (৩০০ ফিট) বুরুলিয়ার চৌরাস্তায় পৌঁছলে একদল ছিনতাইকারী ধারালো রামদা, ছেনি, ছুরি, রড, লোহার পাইপ, কাঠ ও লাঠিসোঁটা নিয়ে তাঁদের পথরোধ করে। তাঁদের কাছ থেকে ব্যবসার এক লাখ ৭৮ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয় ও মারধর করে। তাঁদের ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে ছিনতাইকারীরা পালিয়ে যায়। এর আগে কোনো মামলা করলে তাঁদের প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। তাঁরা আশপাশের লোকজনের সহযোগিতায় স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি হন।

অভিযুক্ত ছিনতাইকারীরা হলেন ভোলানাথপুর বুরুলিয়া এলাকার মো. কলমদার ছেলে সেলিম, কসুমদ্দিনের ছেলে আরিফ, সুজনের ছেলে বিসু, কসুমদ্দিন, হিরুনের ছেলে ফরহাদ, বাবুলের ছেলে সাকিব ও অজ্ঞাতপরিচয় তিন-চারজন।

রূপগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জসিম উদ্দিন বলেন, ‘অভিযোগ পেয়েছি। তদন্তসাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’