kalerkantho

মঙ্গলবার । ৮ আষাঢ় ১৪২৮। ২২ জুন ২০২১। ১০ জিলকদ ১৪৪২

রমজান ও করোনায় ভোক্তা স্বার্থ রক্ষায় বাজারে অভিযান

♦ ৩১ প্রতিষ্ঠানকে সোয়া লাখ টাকা জরিমানা
♦ অতিরিক্ত কেনাকাটা না করার আহ্বান

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১১ এপ্রিল, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আসন্ন রমজান মাস ও করোনা পরিস্থিতিতে ভোক্তা স্বার্থ রক্ষায় অভিযান চালিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। গতকাল রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন বাজারে অভিযানকালে ভোজ্য তেল, চাল, পেঁয়াজ, ছোলা, চিনি, খেজুর, স্যানিটাইজার ও মাস্কসহ অন্যান্য নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য যৌক্তিক মূল্যে বিক্রি হচ্ছে কি না তা মনিটর করা হয়। এ ছাড়া পণ্যের মূল্য তালিকা প্রদর্শন না করা, মূল্য তালিকার সঙ্গে বিক্রয় রসিদের গরমিল, পণ্যের ক্রয় রসিদ সংরক্ষণ না করা, অনিবন্ধিত ওষুধ, মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ ও পণ্য, নকল মাস্ক, স্যানিটাইজার, ওজনে কারচুপিসহ ভোক্তা স্বার্থবিরোধী বিভিন্ন অপরাধে সারা দেশে ৩১ প্রতিষ্ঠানকে এক লাখ ১৩ হাজার টাকা জরিমানা আরোপ ও আদায় করা হয়। এ ছাড়া ঢাকাসহ সারা দেশে টিসিবি কর্তৃক ন্যায্য মূল্যের পণ্য বিক্রয় কার্যক্রম (ট্রাকসেল) তদারকি করা হয়। পণ্যের পর্যাপ্ত মজুদ রয়েছে জানিয়ে অতিরিক্ত বা প্রয়োজনের তুলনায় বেশি কেনাকাটা না করার আহ্বান জানিয়েছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর ।

অভিযান চলাকালে ব্যবসায়ীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে বাজারে পণ্য ক্রয়-বিক্রয় করতে সতর্ক করা হয়। বাজারে মাস্ক ব্যবহার ও সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার জন্য সচেতনতামূলক প্রচার করা হয়। করোনা থেকে সুরক্ষার জন্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে ব্যবসায়ী ও ভোক্তা তথা জনসাধারণের মধ্যে মাস্ক বিতরণ করা হয়।

ঢাকা মহানগরীর কারওয়ান বাজার, মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেট, নিউ মার্কেটসহ হাতিরপুল বাজার, পলাশী বাজারসহ বিভিন্ন সুপারশপ ও ফার্মেসিতে অভিযান পরিচালনার সময় ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপপরিচালক (উপসচিব) মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার, প্রধান কার্যালয়ের উপপরিচালক মো. মাসুম আরেফিনসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়া ঢাকার বাইরে বিভাগীয় কার্যালয়ের উপপরিচালক ও জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালকের নেতৃত্বে বিভিন্ন বাজারে তদারকি ও সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করা হয়।