kalerkantho

শনিবার । ১০ আশ্বিন ১৪২৮। ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১। ১৭ সফর ১৪৪৩

মাদরাসায় শিক্ষার্থী মারধর

কারাগারে এক শিক্ষক আরেকজন গ্রেপ্তার

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১১ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চট্টগ্রামের হাটহাজারীর একটি মাদরাসার শিশু শিক্ষার্থীকে (৮) বেধড়ক মারধরের ভিডিও ভাইরাল হওয়ার ঘটনায় দায়ের মামলায় অভিযুক্ত শিক্ষক মো. ইয়াহহিয়াকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মারকাজুল ইসলামিক একাডেমির এই শিক্ষককে গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় তাঁর গ্রামের বাড়ি রাঙ্গুনিয়ার সরফভাটা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গত মঙ্গলবার রাতে এই শিক্ষককে চাকরি থেকে বহিষ্কার করা হয়। এর আগে ওই দিন বিকেলে শিক্ষার্থীকে মারধর করেন তিনি। এই ঘটনার ভিডিও সন্ধ্যার দিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়।

গতকাল রাতে হাটহাজারী থানার পরিদর্শক (অপারেশন) তৌহিদুল করিম বলেন, ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীর বাবা মামলা করেছেন। তাঁরা প্রথমে মামলা করতে চাননি। বুঝিয়ে রাজি করানো হয়।

জানা গেছে, শিশুটিকে দেখতে মঙ্গলবার বিকেলে মাদরাসায় যান মা-বাবা। এদিন ছিল শিশুটির জন্মদিন। এ জন্য ছেলের জন্য মিষ্টি ও চকোলেট নিয়ে যান তাঁরা। ফেরার সময় শিশুটি মা-বাবার সঙ্গে বাড়ি যাওয়ার বায়না ধরে। এক পর্যায়ে সে মা-বাবার পিছু পিছু মাদরাসার মূল ফটকের বাইরে চলে আসে। পরে শিশুটিকে ধরে মাদরাসার ভেতরে নিয়ে মারধর করেন ইয়াহহিয়া।

৩৩ সেকেন্ডের ভিডিওতে দেখা যায়, শিশুটিকে ঘাড় ধরে মাদরাসার ভেতরে নিয়ে যান ইয়াহহিয়া। এরপর বেধড়ক পেটাতে শুরু করেন।

মারধরের ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর রাত ১২টার দিকে হাটহাজারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুহুল আমিন মাদরাসায় যান। শিশুটির মা-বাবাকেও খবর দেওয়া হয়।

ইউএনও রুহুল আমিন জানান, তিনি ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী, অভিযুক্ত শিক্ষক, মাদরাসার পরিচালকসহ সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে কথা বলেন। তাত্ক্ষণিকভাবে অভিযুক্ত শিক্ষককে চাকরিচ্যুতির সিদ্ধান্ত নেন।

মারধরে অজ্ঞান শিক্ষার্থী, শিক্ষকের কারাদণ্ড : এদিকে ময়মনসিংহের নান্দাইলে পড়া না পারায় মাদরাসার এক শিশু শিক্ষার্থীকে (১১) বেদম মারধর করেছেন এক শিক্ষক। এই ঘটনায় আমেনা মফিজ উদ্দিন নুরুল কোরআন নুরানি ও হাফিজিয়া মাদরাসার শিক্ষক শফিকুল ইসলামকে সাত দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। গতকাল সকালে শিক্ষকের মারের চোটে শিশুটি অজ্ঞান হয়ে যায়। এতে ঘটনাটি জানাজানি হয়।

ছাত্রকে পিটিয়ে জখম, থানায় অভিযোগ : নোয়াখালীর সেনবাগে এক মাদরাসাছাত্রকে (১২) পিটিয়ে গুরুতর জখম করায় থানায় অভিযোগ করা হয়েছে। ভূঁইয়ার দীঘি মহিউল ইসলাম হাফেজিয়া মাদরাসার শিক্ষক মো. শাহাদাত হোসেনের বিরুদ্ধে গতকাল সকালে ভুক্তভোগী শিশুটির চাচা থানায় লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগে বলা হয়, আগের দিন মঙ্গলবার সকালে পড়াসংক্রান্ত তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শিশুটিকে বেত্রাঘাত করে রক্তাক্ত করেন শাহাদাত হোসেন। সেনবাগ থানার ওসি আবদুল বাতেন মৃধা জানান, বিষয়টি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

[প্রতিবেদনে তথ্য দিয়েছেন নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম, আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ ও নোয়াখালী প্রতিনিধি]



সাতদিনের সেরা