kalerkantho

বুধবার । ২৯ বৈশাখ ১৪২৮। ১২ মে ২০২১। ২৯ রমজান ১৪৪২

মেয়র-এমপির দ্বন্দ্বে উত্তপ্ত গৌরীপুর

‘আমি সংসদ সদস্য হলেও আমার কথা প্রশাসন শোনে না। শোনে মেয়রের কথা।’

আঞ্চলিক প্রতিনিধি, ময়মনসিংহ   

৯ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ময়মনসিংহের গৌরীপুরে এমপির ছেলে ও মেয়র সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় স্থানীয় রাজনীতির অঙ্গন উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। গতকাল সোমবার এমপি নাজিম উদ্দিনের ছেলে তানজির আহম্মেদ রাজিবের কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে আধাবেলা হরতাল পালন শেষে সংবাদ সম্মেলন করেন মেয়র সৈয়দ রফিকুল ইসলাম।

অন্যদিকে আগের দিন রবিবার রাতে ময়মনসিংহ প্রেস ক্লাবে মেয়রের কর্মকাণ্ড ও ‘মিথ্যা অপপ্রচারের’ বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেন ময়মনসিংহ-৩ (গৌরীপুর) আসনের সংসদ সদস্য নাজিম উদ্দিন আহমেদ।

গতকাল বিকেলে নিজ বাসভবনে সংবাদ সম্মেলন করেন মেয়র রফিকুল। তিনি দাবি করেন, গত রবিবার দুপুরে পৌরসভা কার্যালয়ে যাওয়ার সময় এমপি নাজিমের ছেলে রাজিবের সমর্থকরা তাঁর ওপর হামলা চালান। রাজিবের নির্দেশে মেয়রকে লক্ষ্য করে দুই রাউন্ড গুলিও ছোড়া হয়।

জানতে চাইলে এমপিপুত্র রাজিব বলেন, ‘গৌরীপুরের বাসস্ট্যান্ডে তাঁর গাড়ি লক্ষ্য করে হামলা চালায় মেয়রের সমর্থকরা। তাৎক্ষণিক পুলিশ এসে তাঁদের উদ্ধার করে।’

এর আগে গত রবিবার রাতে ময়মনসিংহ প্রেস ক্লাবে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এমপি নাজিম বলেন, ‘আমি সংসদ সদস্য হয়েও আমার কথা প্রশাসন শোনে না। শোনে মেয়রের কথা। মেয়র সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে। ওসির সামনে সন্ত্রাসী ঘটনা ঘটলেও তিনি কোনো ব্যবস্থা নেন না। রাজাকারের ছেলের (মেয়র) কাছে আমি বিপর্যস্ত। সব দিক দিয়েই আমি ভীতসন্ত্রস্ত অবস্থায় আছি।’

তবে এমপির অভিযোগ নাকচ করে গৌরীপুর থানার ওসি খান আব্দুল হালিম সিদ্দীকি বলেন, ‘আমি আমার দায়িত্ব যথাযথভাবেই পালন করে আসছি। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে যাতে কোনো অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা না ঘটে, সে জন্য অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।’



সাতদিনের সেরা