kalerkantho

শনিবার । ৫ আষাঢ় ১৪২৮। ১৯ জুন ২০২১। ৭ জিলকদ ১৪৪২

স্ত্রীকে খুনের পর সাত টুকরা

নিজস্ব প্রতিবেদক, গাজীপুর   

৮ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ১ মিনিটে



গাজীপুর সদর উপজেলার মনিপুর এলাকায় স্ত্রীকে হত্যার পর লাশ সাত টুকরা করে ময়লার স্তূপে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। গতকাল রবিবার পুলিশ অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করেছে।

নিহত রেহানা আক্তার সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুর থানার কাঁচিরগাতি গ্রামের আবদুল মালেকের মেয়ে। গ্রেপ্তার জুয়েল আহমেদ (২২) একই এলাকার আবদুল বাতেনের ছেলে।

জয়দেবপুর থানার ওসি মামুন-আল রশিদ জানান, জুয়েল ও রেহানা দেড় বছর আগে পালিয়ে বিয়ে করেন। দুই মাস আগে তাঁরা গাজীপুরে বাসা ভাড়া নেন। সেখানে রেহানা একটি গার্মেন্টে চাকরি করতেন এবং জুয়েল ফেরি করে কাপড়ের ব্যবসা করতেন। গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় দাম্পত্য কলহের জেরে টয়লেটের দরজা আটকে রেহানাকে মারধর করেন জুয়েল। মারধরের এক পর্যায়ে রেহানা মারা গেলে জুয়েল লাশ গুম করার পরিকল্পনা করেন। ছুরি দিয়ে লাশের হাত-পা ও মাথা বিচ্ছিন্ন করে সাত খণ্ড করে বাজারের ব্যাগ ও পলিথিনে ভরে বাথরুমে লুকিয়ে রাখেন তিনি। পরে রাতের আঁধারে ময়লার স্তূপে ফেলে দেন।



সাতদিনের সেরা