kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৮ মে ২০২১। ৫ শাওয়াল ১৪৪

দেশের মাটিতে সমাহিত হলেন শাহীন রেজা নূর

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৪ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দেশের মাটিতে সমাহিত হলেন শাহীন রেজা নূর

সাংবাদিক শাহীন রেজা নূরের মরদেহ দেশে এনে মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে সমাহিত করা হয়েছে। এর আগে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে তাঁর প্রতি শ্রদ্ধা জানায় বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ।

ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি কানাডার ভ্যাংকুভারের একটি হাসপাতালে মারা যান শহীদ সাংবাদিক সিরাজুদ্দীন হোসেনের ছেলে ও প্রজন্ম ’৭১-এর সাবেক সভাপতি শাহীন। তাঁর ইচ্ছা ছিল তাঁকে যেন দেশের মাটিতে সমাহিত করা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্যোগে তাঁর মরদেহ গতকাল বুধবার ভোরে দেশে এসে পৌঁছায়।

বিমানবন্দর থেকে প্রথমেই কফিন নিয়ে যাওয়া হয় মোহাম্মদপুরের আসাদ এভিনিউয়ে তাঁর বাবার বাড়িতে। সেখানে জানাজা শেষে মরদেহ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নেওয়া হয়। সেখানে সরকারের মন্ত্রী, রাজনৈতিক নেতা, লেখক, কবি-সাহিত্যিক, সাংস্কৃতিক অঙ্গনের প্রতিনিধিরা তাঁর কফিনে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। বাদ জোহর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ প্রাঙ্গণে দ্বিতীয় জানাজা শেষে বিকেলে মিরপুর শহীদ বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হয়।

কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শাহীন রেজা নূরের প্রতি শ্রদ্ধা জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, আওয়ামী লীগের পক্ষে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি এ কে আজাদ, গণসংগীতশিল্পী ফকির আলমগীর, প্রজন্ম ’৭১-এর পক্ষে আসিফ মুনির তন্ময়, শমী কায়সার, চারুশিল্পী সংসদের কামাল পাশা চৌধুরী, উদীচীর সহসাধারণ সম্পাদক সংগীতা ইমাম, গৌরব একাত্তরের সাধারণ সম্পাদক এফ এম শাহীন প্রমুখ।

এ ছাড়া জাসদ, বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউট, কেন্দ্রীয় খেলাঘর, বাংলাদেশ আবৃত্তিশিল্পী সংসদ, র‌্যামন পাবলিশার্স, কণ্ঠশীলনসহ বিভিন্ন সামািজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয় প্রয়াত সাংবাদিকের কফিনে।

এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা একজন নক্ষত্র হারালাম। একজন তরুণের এভাবে চলে যাওয়া আমাদের খুব ব্যথিত করে।’

মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন ও দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষার জন্য তাঁরা প্রচণ্ড রকমের আবেগ নিয়ে কাজ করতেন। স্বাধীনতার বিপক্ষ শক্তি যেন মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে না পারে সে জন্য তিনি কলম ধরেছেন, কাজ করেছেন।’

শাহীনের মরদেহ দেশে এনে শ্রদ্ধা জানানোর ব্যবস্থা করার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান তাঁর স্ত্রী খুরশিদ জাহান।