kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৮ মে ২০২১। ৫ শাওয়াল ১৪৪

ইউপি নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা

১১ এপ্রিল প্রথম ধাপে ৩৭১ ইউপিতে ভোট

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৪ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) প্রথম ধাপের সাধারণ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। গতকাল বুধবার ঘোষিত এই তফসিল অনুযায়ী আগামী ১১ এপ্রিল কক্সবাজার, নোয়াখালী, চট্টগ্রাম, চাঁদপুর, খুলনা, বাগেরহাট, সুনামগঞ্জ, মাদারীপুর, গাজীপুর, নরসিংদী, ভোলা, ঝালকাঠি, পিরোজপুর, বরগুনা, বরিশাল, সাতক্ষীরা, পটুয়াখালী ও রংপুর জেলার ৩৭১টি ইউপিতে ভোটগ্রহণ হবে। তবে ওই সব ইউপির তালিকা প্রকাশ করা হয়নি। নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা বলেছেন, কমিশনের অনুমোদন পাওয়ার পর এই তালিকা প্রকাশ করা হবে।

ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন হবে দলীয় প্রতীকে। এরই মধ্যে এ নির্বাচনে দলীয় প্রতীকে অংশ না নেওয়ার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে বিএনপি। দেশে প্রায় সাড়ে চার হাজার ইউনিয়ন পরিষদ রয়েছে। সর্বশেষ ২০১৬ সালের ২২ মার্চ থেকে জুনের মধ্যে ছয় ধাপে এসব ইউপিতে ভোট হয়েছিল।

এদিকে দণ্ডপ্রাপ্ত হয়ে সংসদ সদস্য পদ হারানো শহীদ ইসলাম পাপুলের লক্ষ্মীপুর-২ আসনের উপনির্বাচন এবং ১১টি পৌরসভায় একই দিনে ভোট হবে। এসব নির্বাচনের ক্ষেত্রে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ তারিখ ১৮ মার্চ। মনোনয়নপত্র বাছাই ১৯ মার্চ এবং প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২৪ মার্চ।

নির্বাচন কমিশন ভবনে গতকাল এক বৈঠক শেষে এসব তথ্য জানান ইসি সচিব হুমায়ুন কবীর খোন্দকার। তিনি জানান, প্রথম ধাপে ভোট হতে যাওয়া ৩৭১টি ইউনিয়ন পরিষদের মধ্যে ৩০টিতে ইভিএম ব্যবহার করা হবে। লক্ষ্মীপুর-২ আসনের উপনির্বাচন এবং ১১টি পৌরসভায়ও ভোটগ্রহণ হবে ইভিএমে।

লক্ষ্মীপুর-২ আসনের উপনির্বাচনে রিটার্নিং অফিসারের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে কুমিল্লার আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তাকে।

যেসব পৌরসভায় ভোট :  ১১ এপ্রিল ষষ্ঠ ধাপে যে ১১ পৌরসভায় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে সেগুলো হলো—কুমিল্লার নাঙ্গলকোট, ঝালকাঠি সদর, ফরিদপুরের ভাঙ্গা, ফেনীর সোনাগাজী, নোয়াখালীর কবিরহাট, কক্সবাজারের মহেশখালী ও চকরিয়া, দিনাজপুরের সেতাবগঞ্জ, পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জ, চট্টগ্রামের বোয়ালখালী এবং যশোরের নওয়াপাড়া (অভয়নগর)।

এদিকে গতকাল এসব নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার সময় ইসি সচিব হুমায়ুন কবীর খোন্দকার বলেন, ‘আমরা সবাইকে নিয়ে নির্বাচন করতে চাই। নির্বাচন করার একটা প্রিন্সিপল আছে আমাদের। সে অনুযায়ী আইন প্রয়োগকারী সংস্থা, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট যাঁরা থাকেন তাঁদের সবাইকে নিয়োগ করে থাকি। প্রয়োজনে বিজিবি নিয়োগ করে থাকি।’

বিএনপি না এলে নির্বাচন একতরফা হয়ে যাবে কি না—এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘আমরা সবাইকে নিয়ে নির্বাচন করতে চাই।’

ডিবির পক্ষ থেকে ভুয়া এনআইডি তৈরির বিষয়ে ইসি কর্মকর্তাদের জড়িত থাকার কথা বলা হয়েছে। সাংবাদিকদের এসংক্রান্ত প্রশ্নের জবাবে ইসি সচিব বলেন, ‘বিষয়টি প্রথম শুনলাম। আমাদের তথ্য-প্রমাণসহ জানানো হলে নিঃসন্দেহে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেব।’