kalerkantho

রবিবার। ৫ বৈশাখ ১৪২৮। ১৮ এপ্রিল ২০২১। ৫ রমজান ১৪৪২

মুশতাকের মৃত্যুর কারণ তদন্ত করা হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মুশতাকের মৃত্যুর কারণ তদন্ত করা হবে

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, ‘গাজীপুরের কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কেন্দ্রীয় কারাগারে মারা যাওয়া লেখক মুশতাক আহমেদ অন্যের বিশ্বাসের প্রতি আঘাত করে লিখতেন। এ জন্য তাঁর বিরুদ্ধে বেশ কয়েকটা মামলা হয়েছে। কারাগারের ভেতর হঠাৎ অসুস্থ হয়ে তিনি মারা যান বলে জেনেছি। তাঁর মৃত্যুতে কারা কর্তৃপক্ষের কোনো গাফিলতি আছে কি না তদন্ত করা হবে।’

চট্টগ্রাম নগরের ষোলশহর ২ নম্বর গেট মোড়ে গতকাল শুক্রবার সকালে জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয় উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, দেশে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরির পাঁয়তারা চলছে। আলজাজিরার প্রতিবেদন বাংলাদেশের মানুষ প্রত্যাখ্যান করেছে। এই প্রতিবেদন তৈরিতে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্ত্রী এর আগে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয় উদ্বোধন করেন। এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী, মোছলেম উদ্দিন আহমদ, মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী, নজরুল ইসলাম চৌধুরী, ড. আবু রেজা নদভী, চট্টগ্রাম সিটি মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মমিনুর রহমান, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ।

‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়ছেন শেখ হাসিনা’

পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি জানান, গতকাল বিকেলে ড. ধর্মসেন মহাস্থবিরের জাতীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া উপলক্ষে আয়োজিত শ্রদ্ধা নিবেদন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। এ সময় তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশকে অসাম্প্রদায়িক চেতনায় গড়ে তুলতে চেয়েছিলেন। তাঁর সেই স্বপ্ন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী বাস্তবায়ন করতে সক্ষম হয়েছেন।

বাংলাদেশে বৌদ্ধদের সর্বোচ্চ ধর্মীয় গুরু চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার ঊনাইনপুরা লঙ্কারাম বিহারের অধ্যক্ষ ড. ধর্মসেন মহাস্থবিরের জাতীয় অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া উপলক্ষে পটিয়ায় সব ধর্মের মানুষের মিলনমেলায় পরিণত হয়েছে। যুগে যুগে এমন কিছু মানুষ জন্ম নেয়, যাদের ত্যাগ-তিতিক্ষা, সাধন-ভোজন স্বীয় কর্মকাণ্ডে নিজকে মৃত্যুর পরও মানুষের কাছে ধরে রাখতে পারে। তেমনি একজন মহান ব্যক্তিত্ব ড. ধর্মসেন মহাস্থবির।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা