kalerkantho

সোমবার । ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮। ১৪ জুন ২০২১। ২ জিলকদ ১৪৪২

গয়েশ্বর বললেন

জিয়ার খেতাবে হাত দিলে সেই হাত পুড়ে ছাই হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, ‘আমি স্পষ্ট করে বলতে চাই, জিয়াউর রহমানের খেতাবে হাত দিলে সেই হাতে ফোসকা ফুটবে, আগুনে পোড়ার মতো ছাই হয়ে যাবে। এরা যে কত বড় একটা মহা কলঙ্কের তিলক নিজেদের কপালে আঁকার চেষ্টা করছে, এখনো বুঝছে না। কবি-সাহিত্যিক-গীতিকাররা সবপক্ষ যে গানের লাইনটি বলেন, মানি না, মানি না, কলঙ্ক আমার ভালো লাগে, অর্থাৎ কিছু কিছু লোকের কলঙ্কের তিলক পরতে ভালো লাগে, সেই জাতের মধ্যে শেখ হাসিনা।’

প্রয়াত প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের বীর-উত্তম খেতাব বাতিলের প্রস্তাবের প্রতিবাদে গতকাল দুপুরে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত বিক্ষোভসভায় গয়েশ্বর এ কথা বলেন। ঢাকা জেলা বিএনপির সভাপতি দেওয়ান মো. সালাহউদ্দিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আবু আশফাকের পরিচালনায় সভায় বক্তৃতা করেন বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানি, নিপুণ রায় চৌধুরী প্রমুখ।

গয়েশ্বর বলেন, ‘এই দেশটা প্রজাতন্ত্রের, সেই প্রজাতন্ত্রের নাম বাংলাদেশ, এর মালিক জনগণ। সেই জনগণের মালিকানা ফেরত আনার জন্যই আমাদের আগামী দিন পথ চলতে হবে। তাতে বাধা আসবে, বাধা অতিক্রম করতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমি বছর সাত-আট আগে বলেছিলাম, দিস গভর্মেন্ট নট বাই দ্য পিপল, নট ফর দ্য পিপল, নট অব দ্য পিপল। দিস গভর্মেন্ট বাই দি ইন্ডিয়া, ফর দি ইন্ডিয়া, অব দি ইন্ডিয়া। সুতরাং আজকে যা কিছুই হচ্ছে, সে বিষয়ে ভারতের একটি অংশ বাংলাদেশকে আনুষ্ঠানিকভাবে না পেলেও মনের দিক থেকে তারা দেশটাকে শোষণ করছে। এর ক্ষেত্রস্থল তৈরি করার দায়িত্বটা শেখ হাসিনা নিয়েছেন। জনগণ তাদের সমর্থন করল কী করল না, সেটা তাদের কাছে বড় বিষয় না।’

দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী বলেন, ‘কম্পিটেশন লেগে গেছে, আ ক ম মোজাম্মেল হক, শাহজাহান খানের পর গতকাল (রবিবার) নৌ প্রতিমন্ত্রী বলে বসলেন, জিয়াউর রহমান বাংলাদেশের লোকই ছিলেন না। এতগুলো খেক শিয়াল, পাতি শিয়ালের মধ্যে আরেকটা পেলাম বাকশিয়াল।’