kalerkantho

বুধবার । ১১ কার্তিক ১৪২৮। ২৭ অক্টোবর ২০২১। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

মানবপাচার মামলা

নৃত্যশিল্পী ইভানের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন ১৬ ফেব্রুয়ারি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১ ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নৃত্যশিল্পী ও কোরিওগ্রাফার ইভান শাহরিয়ার সোহাগের বিরুদ্ধে মানবপাচার আইনের মামলায় তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল পিছিয়ে আগামী ১৬ ফেব্রুয়ারি নতুন দিন নির্ধারণ করা হয়েছে। গতকাল রবিবার ঢাকা মহানগর হাকিম বেগম ইয়াসমিন আরার আদালত এ আদেশ দেন। 

দুবাই পুলিশের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে আজম খান নামের এক ব্যক্তি ও তাঁর চার সহযোগীর নামে গত বছরের ২ জুলাই মানবপাচার আইনে লালবাগ থানায় একটি মামলা করেন সিআইডির সহকারী পুলিশ সুপার মৃণাল কান্তি শাহ। পরে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়। এরপর আজম ও অন্যদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে নৃত্যশিল্পী ইভানকে গত ১১ সেপ্টেম্বর রাজধানীর নিকেতন থেকে গ্রেপ্তার করে সিআইডি। পরে তাঁকে সাত দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়। এদিকে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাঁকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত তাঁকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

মামলার অন্য আসামিরা হলেন আলামিন হোসেন ওরফে ডায়মন্ড (২৬), স্বপন হোসেন (২৮), আজম খান (৪৫), নাজিম (৩৬), এরশাদ, নির্মল দাস, আলমগীর, আমান ও শুভ।

মামলার এজাহারে বলা হয়, আজম খান, তাঁর দুই ভাই ও আসামিরা দুবাইয়ের হোটেল ও ডান্স বারে মেয়েদের যৌনকর্মে বাধ্য করতেন। তাঁদের প্রতিনিধিরা দেশের বিভিন্ন নাচের ক্লাব বা সংগঠন থেকে মেয়েদের সংগ্রহ করে কাজ দেওয়ার নামে তাঁদের দুবাই পাঠাচ্ছিলেন।

আজম খান এবং তাঁর দুই প্রতিনিধি নির্মল সরকার ও মো. ইয়াছিন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

উল্লেখ্য, ‘ধ্যাততেরিকি’ সিনেমায় নৃত্য পরিচালনার জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন ইভান শাহরিয়ার সোহাগ। তিনি ডান্স ট্রুপ নামে একটি ডান্স কম্পানি পরিচালনা করে আসছিলেন। বিভিন্ন করপোরেট অনুষ্ঠানে পারফরম করে তাঁর দল।