kalerkantho

বুধবার । ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭। ৩ মার্চ ২০২১। ১৮ রজব ১৪৪২

সিলেটে ধরন নিয়ে শঙ্কা কাটছে না

সিলেট অফিস   

২৮ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সিলেটে ধরন নিয়ে শঙ্কা কাটছে না

যুক্তরাজ্যে ছড়ানো করোনার নতুন ধরন (স্ট্রেইন) প্রবাসী যাত্রীদের মাধ্যমে দেশে চলে এসেছে কি না তা নিয়ে শঙ্কা কাটছে না। প্রথম দফার পরীক্ষায় যুক্তরাজ্য থেকে আসা ২৮ যাত্রীর করোনা শনাক্ত হয়েছিল। এক দিনের ব্যবধানে দ্বিতীয় দফা পরীক্ষায় তিনজনের ফল পজিটিভ এসেছে। তাঁদের মধ্যে এক দম্পতি ও এক বৃদ্ধ রয়েছেন। বাকি ২৫ জনের ফল নেগেটিভ। এ অবস্থায় ঢাকা থেকে আসা আইইডিসিআরের দল আলাদাভাবে ২৮ যাত্রীর নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠিয়েছে। গতকাল বুধবার রাত পর্যন্ত ঢাকা থেকে ফল আসেনি।

লন্ডনের হিথরো বিমানবন্দর থেকে গত বৃহস্পতিবার সরাসরি ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে নামেন সিলেটের ১৫৭ জন যাত্রী। নতুন নিয়ম অনুযায়ী চার দিন কোয়ারেন্টিনে থাকার পর গত রবিবার তাঁদের করোনা পরীক্ষা করা হয় স্থানীয় বেসরকারি প্রতিষ্ঠান সীমান্তিকের ল্যাবে। সেখানকার ফলাফলে দেখা যায়, যুক্তরাজ্য থেকে আসা যাত্রীদের মধ্যে ২৮ জনের করোনা পজিটিভ। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে সিলেটজুড়ে আলোড়ন শুরু হয়। স্বাস্থ্য বিভাগও তোড়জোড় শুরু করে। ওই দিন রাতেই করোনা শনাক্ত হওয়া ২৮ যাত্রীর নমুনা ফের সংগ্রহ করে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পিসিআর ল্যাবে পাঠানো হয়। সেখানে পরীক্ষার পর গত মঙ্গলবার রাতে ফলাফলে দেখা যায় তিনজনের করোনা পজিটিভ। বাকি ২৫ জনের নেগেটিভ আসে। অন্যদিকে যুক্তরাজ্য থেকে আসা ২৮ জনের করোনা শনাক্তের খবরে ঢাকা থেকে মঙ্গলবার সিলেটে আসে রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) একটি দল। তারা রাতেই সিলেট শহরতলির খাদিমে ৩১ শয্যা হাসপাতালে গিয়ে ওই ২৮ রোগীর নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় প্রেরণ করে।

এসব বিষয়ে খাদিম ৩১ শয্যা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. জালাল উদ্দিন বলেন, ‘দ্বিতীয়বারের পরীক্ষায় পজিটিভ ফল আসা তিনজনকে আলাদা কেবিনে রাখা হয়েছে। বাকি ২৫ যাত্রীকে সাধারণ ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে। তাঁদের সবার শারীরিক অবস্থা ভালো আছে।’ তিনি আরো বলেন, ঢাকার ফলাফলেও যদি কারো করোনা পজিটিভ আসে সেক্ষেত্রে শনাক্ত হওয়া রোগীদের সিলেটে করোনা চিকিৎসার জন্য বিশেষায়িত শহীদ শামসুদ্দিন আহমদ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হবে। তিনি বলেন, ‘যাঁদের করোনা নেগেটিভ আসবে তাঁদের ছেড়ে দেওয়া হবে।’

সিলেটে প্রথম ধাপে সাড়ে ৪৪ হাজার টিকা : প্রথম দফায় করোনাভাইরাসের ৪৪ হাজার ৪০০ টিকা পাবে সিলেট বিভাগের চার জেলা। এর মধ্যে সিলেট জেলার জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ২২ হাজার ৮০০ টিকা। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক ডা. আনিসুর রহমান এসব তথ্য জানান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা