kalerkantho

শুক্রবার । ১৩ ফাল্গুন ১৪২৭। ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১। ১৩ রজব ১৪৪২

ছাত্রাবাসে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

সাক্ষী না আসায় নতুন দিন ধার্য

সিলেট অফিস   

২৫ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের মামলায় বাদীপক্ষের সাক্ষীরা উপস্থিত না থাকায় সাক্ষ্যগ্রহণের তারিখ পিছিয়েছে।

আগামী বুধবার সাক্ষ্যগ্রহণের নতুন তারিখ নির্ধারণ করেছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মোহিতুল হক। গতকাল রবিবার এ আদেশ দেওয়া হয়।

সকাল ১১টায় সিলেটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মোহিতুল হকের আদালতে হাজির করা হয় মামলার আট আসামিকে। আদালত তাদের উপস্থিতিতে এ আদেশ দেন। বাদীপক্ষের আইনজীবী আদালতে দাখিল করা সংঘবদ্ধ ধর্ষণ ও চাঁদাবাজির পৃথক অভিযোগপত্রের শুনানি একই দিনে চলমান রাখার আবেদন দাখিল করলে আদালত তা নামঞ্জুর করেন।

বাদীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট সিরাজুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, ওই ঘটনায় আদালতে পুলিশ পৃথক দুটি অভিযোগপত্র (চাঁদাবাজি ও ধর্ষণ) দাখিল করেছে। এই দুটি অভিযোগপত্রে আসামিও একই। তাই দুটি অভিযোগপত্রের বিচার দ্রুত হওয়ার জন্য বাদীপক্ষের পক্ষ থেকে ধর্ষণ মামলার অভিযোগপত্রের সঙ্গে চাঁদাবাজি অভিযোগপত্রের কার্যক্রম একই আদালতে চলার জন্য আবেদন দাখিল করা হয়। কিন্তু আদালত তা নামঞ্জুর করেন। পিটিশন দাখিল করায় বাদীপক্ষ আদালতে সাক্ষী হাজির করেনি। আগামী তারিখে আলোচনা করে পরবর্তী করণীয় নির্ধারণ করা হবে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের পিপি রাশিদা সাঈদা খানম বলেন, বাদীপক্ষের আইনজীবী সংঘবদ্ধ ধর্ষণ ও ছিনতাই মামলা একই আদালতে একসঙ্গে বিচারকাজ শুরু করার আবেদন করেন। বিচারক তা খারিজ করে আগামী তারিখে সাক্ষী হাজির করার নির্দেশ দেন।

চলতি মাসের ১৭ জানুয়ারি অভিযোগ গঠন করে ২৪ জানুয়ারি সাক্ষ্যগ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করেছিলেন আদালত।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা