kalerkantho

শনিবার । ২৭ চৈত্র ১৪২৭। ১০ এপ্রিল ২০২১। ২৬ শাবান ১৪৪২

দেশে ঊনসত্তরের মতো গণ-অভ্যুত্থান পরিস্থিতি বিরাজ করছে : ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৪ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দেশে বর্তমানে মানুষের স্বাধীনতা, মানবিক মর্যাদা ও নির্ভয়ে কথা বলার অধিকার নেই। ঘোর দুর্দিন অতিক্রম করছে মানুষ। দেশে ঊনসত্তরের মতো গণ-অভ্যুত্থানের পরিস্থিতি বিরাজ করছে। অধিকারহারা বঞ্চিত জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আমাদের আবারও রাজপথে বেরিয়ে আসতে হবে। ভাঙতে হবে স্বৈরাচারের দুঃশাসনের শৃঙ্খল।

ঐতিহাসিক গণ-অভ্যুত্থান দিবস উপলক্ষে গতকাল শনিবার বিএনপির পক্ষ থেকে দেওয়া এক বাণীতে এসব কথা বলেন মির্জা ফখরুল। ঊনসত্তরের গণ-আন্দোলনসহ বিভিন্ন গণতান্ত্রিক আন্দোলনে বীর শহীদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানান তিনি।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী স্বাক্ষরিত বাণীতে মহাসচিব আরো বলেন, ঐতিহাসিক গণ-অভ্যুত্থান দিবস আমাদের জাতীয় জীবনে এক গুরুত্বপূর্ণ দিন। দেশে গণতন্ত্র ও নাগরিকের মৌলিক অধিকার সুরক্ষায় গণ-অভ্যুত্থান দিবস আমাদের প্রেরণার উৎস। ঊনসত্তরের এই দিনে ছাত্র-জনতার দৃঢ় ঐক্য দীর্ঘ আন্দোলনকে গণ-অভ্যুত্থানে রূপ দিয়েছিল। ছাত্র-জনতা ঐক্যবদ্ধ হয়েছিল পশ্চিমা শাসন-শোষণের বিরুদ্ধে রাজপথে দৃঢ় প্রতিরোধ গড়ে তুলতে। দীর্ঘদিন ধরে এ দেশের জনগণের হারানো অধিকার ফিরে পাওয়ার আন্দোলন ঊনসত্তরের এই দিনে গণ-অভ্যুত্থানের পরিণতি লাভ করে।

বিএনপির এই মুখপাত্র বলেন, সামরিক স্বৈরশাসনের বিরুদ্ধে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের জনগণের এ সংগ্রাম ছিল বিশ্বের সব স্বৈরাচারের বিরুদ্ধে সতর্কবার্তা। ঊনসত্তরে স্বৈরশাসনের পতনের মধ্য দিয়ে গণতন্ত্র ও স্বাধীনতার দ্বার উন্মুক্ত হয়েছিল। কিন্তু স্বাধীনতাপ্রাপ্তির প্রায় অর্ধশতাব্দী পরও দেশীয় কর্তৃত্ববাদী বর্তমান স্বৈরাচার ঔপনিবেশিক প্রভুদের মতো দুঃশাসন চালাচ্ছে।

মন্তব্য