kalerkantho

বুধবার । ১৮ ফাল্গুন ১৪২৭। ৩ মার্চ ২০২১। ১৮ রজব ১৪৪২

চাকায় পিষ্ট হয়ে স্ত্রীর মৃত্যু স্বামী আহত

সড়ক দুর্ঘটনায় ছয় জেলায় ঝরল ছয় প্রাণ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৪ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এক মোটরসাইকেলে চেপে মেয়ের বাড়ি যাচ্ছিলেন স্বামী-স্ত্রী। কিন্তু পথেই শেষ হয়েছে স্ত্রীর জীবন। স্বামী মোটরসাইকেলটি চালাচ্ছিলেন, স্ত্রী বসেছিলেন তাঁর পেছনে। এ সময় বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাক্টরের সঙ্গে মোটরসাইকেলটির ধাক্কা লাগে। এতে মোটরসাইকেল থেকে পড়ে ট্রাক্টরের চাকায় পিষ্ট হয়ে মৃত্যু হয় ওই নারীর। আহত হন তাঁর স্বামী। জানা গেছে, ঘন কুয়াশার কারণে গতকাল শনিবার ১০টার দিকে নওগাঁর মান্দা উপজেলায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

একই দিন আরো পাঁচ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে এক শিশুসহ পাঁচজন। এর মধ্যে এক ভটভটিচালকের মৃত্যু হয়েছে চাকার সঙ্গে গলায় চাদরের ফাঁস লেগে। প্রত্যক্ষদর্শী, থানা-পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর :

মান্দা উপজেলার নীলকুঠি-জোতবাজার রাস্তার সৈয়দপুর চৌকিদারের মোড়ে নিহতের নাম আনজুয়ারা বিবি (৪০)। তাঁর স্বামী আহত তোফাজ্জল হোসেনকে (৪৮) মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। স্থানীয়ভাবে ঘটনাটি নিষ্পত্তি করে নেওয়া হয়েছে।

শেরপুরের শ্রীবরদীতে দুপুরে ব্যাটারিচালিত অটোবাইকের চাকার নিচে পড়ে প্রাণ গেছে আশা মনি (৭) নামের এক শিশুর। উপজেলার লংগড়পাড়া এলাকায় সবুজ সাথী স্কুলের সামনে শ্রীবরদী-শেরপুর সড়কে এই ঘটনা ঘটে। আশা মনি আবুয়ারপাড়া গ্রামের আব্দুর রশিদের মেয়ে। এ ঘটনায় অটোবাইকচালক খড়িয়াকাজীরচর এলাকার রুবেল মিয়াকে আটক করেছে পুলিশ। আশা মনি মায়ের সঙ্গে লংগড়পাড়ায় খালার বাড়িতে বেড়াতে গিয়েছিল। রাস্তা পার হওয়ার সময় একটি অটোবাইক তাকে চাপা দেয়।

লক্ষ্মীপুরের মান্দারী বাজারে লক্ষ্মীপুর-নোয়াখালী আঞ্চলিক মহাসড়কে সকালে কাভার্ড ভ্যানের চাপায় নিহত হন সিএনজিচালিত অটোরিকশাচালক মো. সুমন (৩২)। তিনি মান্দারী ইউনিয়নের রতনপুর গ্রামের রুহুল আমিনের ছেলে। ঢাকাগামী কাভার্ড ভ্যানটি মান্দারী বাজার ব্রিজের ওপর পৌঁছালে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পেছনের দিকে চলে আসে। এ সময় স্ট্যান্ডে নিজের অটোরিকশা পার্কিং করে দাঁড়িয়ে থাকা সুমনকে চাপা দেয় ভ্যানটি। সুমনের লাশসহ অটোরিকশা ও ভ্যানটি পুলিশের হেফাজতে রয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হবে।

জয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলার শিবপুরের ফুলদীঘি-শিবপুর সড়কে সকালে ভটভটির চাকার সঙ্গে গায়ের চাদর গলায় পেঁচিয়ে শ্বাসরোধে যানটির চালক নাইম ইসলামের (২০) মৃত্যু হয়। স্থানীয় ধামশণ্ডা এলাকা থেকে ভটভটিতে মাছ নিয়ে যাওয়ার সময় দুর্ঘটনাটি ঘটে। নাইম পাশের কালাই উপজেলার কাদিরপুর গ্রামের মহিফুল ইসলামের ছেলে।

খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলার রসিকনগর বাজার এলাকায় সকালে যাত্রীবাহী দুই মাহিন্দ্রা গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষে সুভাষ চন্দ্র নাথ নামের এক যাত্রী (৬০) নিহত হয়েছেন। তিনি রসিকনগর গুলছড়ি এলাকার মৃত হিরেন্দ্র চন্দ্র নাথের ছেলে। রসিকনগর বাজার থেকে মাহিন্দ্রাযোগে বোয়ালখালী বাজারে যাচ্ছিলেন তিনি।

দিনাজপুর বিরল উপজেলার ফরাক্কাবাদ মোড়ে সকালে যাত্রীবাহী বাস, ট্রাক্টর ও মোটরসাইকেলের ত্রিমুখী সংঘর্ষে নিহত হয়েছেন মোটরসাইকেলটির আরোহী (৩৫)। তাৎক্ষণিকভাবে তাঁর পরিচয় পাওয়া যায়নি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা