kalerkantho

শুক্রবার । ২০ ফাল্গুন ১৪২৭। ৫ মার্চ ২০২১। ২০ রজব ১৪৪২

মোংলায় জাহাজ আনায় অনীহা ক্যাপ্টেনদের

মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি   

২৪ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মোংলা বন্দরে দুর্ঘটনার শিকার হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দুটি বিদেশি বাণিজ্যিক জাহাজের ক্যাপ্টেনরা বন্দর চেয়ারম্যান ও হারবার মাস্টারের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়ে বন্দর ব্যবহারে অনীহা প্রকাশ করেছেন। গতকাল শনিবার এমভি তুহিনা ও এমভি ইউএইচএল ফোকাসের দুই ক্যাপ্টেন এ অভিযোগ দেন।

এমভি তুহিনার স্থানীয় শিপিং এজেন্ট আল সাফা শিপিং লাইসেন্সের খুলনার ম্যানেজার সাধন কুমার চক্রবর্তী জানান, নাব্যতা সংকটের কারণে গত বৃহস্পতিবার ভাটার সময় জাহাজটি কাত হয়ে যায়। জাহাজের ক্যাপ্টেন তাঁদের প্রতিষ্ঠান এবং বন্দর চেয়ারম্যান ও হারবার মাস্টারকে লিখিত অভিযোগ করেছেন।

অন্যদিকে এমভি ইউএইচএল ফোকাস নামক জাহাজটি একই দিন জেটিতে ভেড়ার সময় জেটির বাইরের অংশ (ফিনডার) না থাকায় আঘাত পায়। এ ছাড়া ঘষা লাগায় জাহাজটির বাইরের অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। শিপিং এজেন্ট অলসিসের স্থানীয় প্রতিনিধি সাখাওয়াত হোসেন মিলন ক্ষয়ক্ষতির কথা বন্দর কর্তৃপক্ষের কাছে লিখিত অভিযোগের (লেটার অব পোর্টেস্ট) মাধ্যমে দেওয়া হয়েছে বলে জানান।

বন্দর জেটিতে একই সঙ্গে দুটি জাহাজ দুর্ঘটনার শিকার হওয়াতে বহির্বিশ্বে মোংলা বন্দরের সুনাম ক্ষুণ্ন হচ্ছে বলে জানান স্থানীয় বন্দর ব্যবহারকারীরা। নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন বন্দর ব্যবহারকারী জানান, গত বছরের জুলাই মাসে ৫ নম্বর জেটি এলাকায় ড্রেজিং শেষে সিভিল ও হাইড্রোলিক বিভাগ হারবার বিভাগকে জেটি এলাকার আর কোথাও ড্রেজিংয়ের প্রয়োজনীতা রয়েছে কি না জানতে চেয়ে চিঠি দেয়। সেই চিঠির জবাবে হারবার বিভাগ ড্রেজিংয়ের প্রয়োজনীতা নেই বলে উত্তর দেয়। কিন্তু সেই সময় যদি ড্রেজিং করা হতো তাহলে বিদেশি জাহাজ দুটি এভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতো না বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেন তাঁরা।

এদিকে হারবার মাস্টার কমান্ডার ফখরউদ্দিন জানান, গত এক মাসে জেটিতে আরো যে জাহাজ ছিল, তাদের কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা