kalerkantho

শনিবার । ৯ শ্রাবণ ১৪২৮। ২৪ জুলাই ২০২১। ১৩ জিলহজ ১৪৪২

স্বামীর লাশ নিয়ে কারখানার সামনে স্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক, সাভার (ঢাকা)   

৪ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কর্তৃপক্ষের অবহেলায় স্বামীর মৃত্যুর অভিযোগ করে ক্ষতিপূরণের দাবিতে কারখানার সামনে লাশ নিয়ে অবস্থান নিয়েছিলেন এক নারী। গতকাল সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত আশুলিয়ার পলাশবাড়ীতে স্কাইলাইন পোশাক কারখানার সামনে অবস্থান নেন তিনি। সব পাওনা বুঝিয়ে দেওয়ার পর তিনি চলে গেছেন বলে কারাখানা কর্তৃপক্ষ জানায়।

রহিমা নামের ওই নারী জানান, শরীয়তপুরের নড়িয়া থানার বাসিন্দা তাঁর স্বামী মো. নজরুল ইসলাম (৫৫) স্কাইলাইন গ্রুপে ১২ বছর গাড়িচালক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। গতকাল ভোর ৪টার দিকে পলাশবাড়ী এলাকার ভাড়া বাসায় তিনি মারা যান।

রহিমার অভিযোগ, কয়েক মাস ধরে নজরুলের বুকে ব্যথা ছিল। চিকিৎসক তাঁকে ১৫ দিন বিশ্রামে থাকার পরামর্শ দেন। কিন্তু কারখানা কর্তৃপক্ষ ছুটি দেয়নি। গত ২৯ ডিসেম্বর তিনি গুরুতর অসুস্থ হয়ে ছুটি চেয়েও পাননি, উল্টো তাঁকে চাকরি ছেড়ে দিতে বলেন কর্মকর্তারা। পরে রবিবার ভোর ৪টার দিকে বাসার টয়লেটে পড়ে গিয়ে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। এ ঘটনার দায় কারখানা কর্তৃপক্ষ এড়াতে পারে না। এর বিচার চান রহিমা।

কারখানার প্রশাসন বিভাগের জেনারেল ম্যানেজার আরাফাত হোসেন বলেন, নজরুল হঠাৎ করেই মারা গেছেন। রহিমা কারখানার সামনে আসার পর নজরুলের সব পাওনা বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। বিকেলে তিনি স্বামীর মরদেহ নিয়ে চলে গেছেন।