kalerkantho

শনিবার । ৯ মাঘ ১৪২৭। ২৩ জানুয়ারি ২০২১। ৯ জমাদিউস সানি ১৪৪২

হাসিনা-মোদি ভার্চুয়াল বৈঠকের এজেন্ডা নির্ধারণ

পররাষ্ট্রসচিব পর্যায়ে বৈঠক ৮ ডিসেম্বর

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

২৪ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



আগামী মাসে ভার্চুয়াল শীর্ষ বৈঠকে বসছে বাংলাদেশ ও ভারত। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ওই বৈঠকে নেতৃত্ব দেবেন। বৈঠকের আলোচ্যসূচি ঠিক করতে পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লি যাচ্ছেন।

কূটনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, আগামী ৮ ডিসেম্বর নয়াদিল্লিতে ভারতের পররাষ্ট্রসচিব হর্ষ বর্ধন শ্রিংলার সঙ্গে পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেনের বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। মূলত ওই বৈঠকেই ঠিক হবে আসন্ন শীর্ষ বৈঠকের রূপরেখা।

জানা গেছে, বাংলাদেশ-ভারত শীর্ষ বৈঠকের তারিখ এখনো চূড়ান্ত হয়নি। পররাষ্ট্রসচিবদের বৈঠকে ওই তারিখ নির্ধারিত হতে পারে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন গত সপ্তাহে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ‘মিট দ্য রিপোর্টার্স’ অনুষ্ঠানে জানান, আগামী ১৭ ডিসেম্বর বাংলাদেশ-ভারত শীর্ষ বৈঠক হতে পারে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, আসন্ন শীর্ষ বৈঠকে দুই দেশের মধ্যে চারটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই হতে পারে। পররাষ্ট্রসচিবের ভারত সফরের সময় এটি ঠিক হবে।

আসন্ন শীর্ষ সম্মেলনে তিস্তার পানিবণ্টন চুক্তি নিয়ে কোনো ‘ম্যাজিক’ থাকবে না বলেও এরই মধ্যে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিস্তা চুক্তি প্রসঙ্গে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘হঠাৎ করে এটি সই হবে তা আমরা মনে করি না। তবে যেটা হবে তিস্তাটা মোটামুটি রেডি হয়ে আছে। চুক্তি সম্মত হয়ে আছে। কিন্তু সই হয়নি। ভারত সরকার কখনো বলেনি যে এটি তারা সই করবে না। তারা বলছে, অভ্যন্তরীণ সমস্যার কারণে সই করতে পারছে না। এটি ওই পর্যায়ে আছে। নতুন কোনো অগ্রগতি হয়নি।’

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নদী বিষয়ে একটি টেকনিক্যাল কমিটি আগামী মাসে ভারতে যাবে এবং আলাপ করবে। বাকি সাতটি নদীর বিষয়ে একটি কাঠামো নিয়ে আলোচনা হবে। তিনি বলেন, ‘এটি (আসন্ন বৈঠক) প্রধানত আমাদের সম্পর্ককে চাঙ্গা করা। ১৬ ডিসেম্বর যেমন আমাদের অর্জন, তেমনি ভারতেরও অর্জন।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা