kalerkantho

সোমবার । ১১ মাঘ ১৪২৭। ২৫ জানুয়ারি ২০২১। ১১ জমাদিউস সানি ১৪৪২

শাহজাদপুরে ‘জঙ্গি আস্তানা’ থেকে ৪ জনের আত্মসমর্পণ

রাজশাহীতে গ্রেপ্তার ৪ জঙ্গি
পিস্তল, বোমা তৈরির সরঞ্জাম, জিহাদি বই উদ্ধার

সিরাজগঞ্জ ও শাহজাদপুর প্রতিনিধি   

২১ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরের শেরখালী উকিলপাড়া এলাকার ‘জঙ্গি আস্তানায়’ গতকাল শুক্রবার ভোরে অভিযানে জেএমবির চার সদস্য আত্মসমর্পণ করেছেন বলে জানিয়েছে র‌্যাব। অন্যদিকে বৃহস্পতিবার রাতে রাজশাহীর শাহ মখদুম এলাকায় র‌্যাবের অভিযানে জেএমবির আঞ্চলিক কমান্ডারসহ চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

গতকাল সকাল সাড়ে ১১টার দিকে অভিযান শেষে র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশন) কর্নেল তোফায়েল মোস্তফা সারোয়ার শাহজাদপুরে ঘটনাস্থলের কাছে গণমাধ্যমকর্মীদের ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য জানান।

আত্মসমর্পণকারীরা হলেন—জামা’আতুল মুজাহিদীন বাংলাদেশের (জেএমবি) আঞ্চলিক প্রধান (পাবনা-সিরাজগঞ্জ) কিরণ ওরফে শামীম ওরফে হামিম, পাবনার সাঁথিয়ার নাইমুল ইসলাম, দিনাজপুরের আতিয়ার রহমান ও সাতক্ষীরার আমিনুল ইসলাম ওরফে শান্ত। ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, গ্রেপ্তারকৃতরা তাবলিগ জামাতের লোক সেজে ছাত্রদের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করতেন।

রাজশাহীতে গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে তিনজন হলেন জেএমবির আঞ্চলিক কমান্ডার মাহমুদ, জুয়েল ও আশরাফুল।

ব্রিফিং ও র‌্যাব-১২-এর কম্পানি কমান্ডার মিরাজউদ্দিন সূত্রে জানা যায়, মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সরকারের জিরো টলারেন্স নীতির অংশ হিসেবে বৃহস্পতিবার রাত ১১টায় রাজশাহীর শাহ মখদুম এলাকায় জঙ্গিবিরোধী অভিযানে চারজনকে আটক করা হয়। এ সময় তাঁরা মাসিক সভার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। তাঁদের দেওয়া তথ্যে রাত ২টার দিকে র‌্যাব শাহজাদপুরের উকিলপাড়ায় একটি বাড়ি ঘিরে রাখে। জঙ্গিরা র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে ভোর ৫টার দিকে পিস্তলের চার-পাঁচ রাউন্ড গুলি ছোড়ে। হ্যান্ড মাইকে র‌্যাবের পক্ষ থেকে জঙ্গিদের (সকাল ১০টার মধ্যে) আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে র‌্যাবের বোমা ডিসপোজাল ইউনিট আস্তানাটিতে প্রবেশ করলে জঙ্গি কিরণ, নাইমুল, আতিয়ার ও আমিনুল ইসলাম শান্ত বেরিয়ে এসে র‌্যাবের হাতে ধরা দেন। এরপর

আস্তানা থেকে দুটি পিস্তল, বোমা তৈরির সরঞ্জাম, চাপাতি, জিহাদি বইসহ প্রশিক্ষণের নানা সামগ্রী উদ্ধার করা হয়। এ খবরে সকাল ৯টার দিকে ঢাকার র‌্যাব সদর দপ্তর থেকে হেলিকপ্টারযোগে শাহজাদপুরে আসেন র‌্যাব কর্মকর্তা তোফায়েল মোস্তফা সরোয়ার।

র‌্যাব কর্মকর্তা মিরাজউদ্দিন জানান, গত ৫ নভেম্বর ছাত্র পরিচয়ে ওই বাড়িটি ভাড়া নিয়ে জঙ্গি ও সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালানো হচ্ছিল—এমন সংবাদে সেখানে অভিযান চালানো হয়। গ্রেপ্তারকৃতদের সিরাজগঞ্জ র‌্যাব সদর দপ্তরে নেওয়া হয়েছে। তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ শেষে শাহজাদপুর থানায় হস্তান্তর করা হবে। অভিযানে শাহজাহদপুর থানার পুলিশ সহযোগিতা করে।

প্রেস ব্রিফিংয়ে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যমবিষয়ক কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহসহ উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা