kalerkantho

শুক্রবার । ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৭ নভেম্বর ২০২০। ১১ রবিউস সানি ১৪৪২

ত্রিশালে শিশুসন্তানকে হত্যা করলেন মা

ত্রিশাল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি   

৩০ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ময়মনসিংহের ত্রিশালের কাঁঠাল ইউনিয়নের বালিয়ারপাড় গ্রামে মাহজার (৬) নামের এক শিশুকে তারই মা গলা টিপে হত্যা করেছেন। হত্যার পর মা মাহমুদা খাতুন সন্তানের লাশ খাটের নিচে লুকিয়ে রাখেন। গ্রেপ্তারের পর গতকাল মাহমুদা এ হত্যার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা  আদালতে স্বীকার করেছেন।

জানা যায়, উপজেলার বালিয়ারপাড় গ্রামের রাজিবুল ১২ বছর আগে মাহমুদাকে বিয়ে করলে তাঁর সংসারে দুটি সন্তান আসে। বছরখানেক আগে স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করে মাহমুদা বাবার বাড়ি চলে যান। পরে প্রথম স্ত্রীর অনুমতি ছাড়াই রাজিবুল দ্বিতীয় বিয়ে করেন। প্রথম স্ত্রী মাহমুদা কয়েক মাস পর রাজিবের ঘরে ফিরে আসেন। এক সঙ্গে দুই স্ত্রী নিয়েই চলছিল সংসার। দ্বিতীয় স্ত্রী কাকলী এখন ছয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা। গত বুধবার দুপুরে সত্মায়ের রান্না খেতে চায় শিশু মাজহার। সত্মা কাকলী আপত্তি করায় নিজের মায়ের কাছে বায়না ধরে মাজহার। এ নিয়ে মাহজারের মা তার বাবার সঙ্গে ঝগড়া করেন। পরে মাজহার আবার বেলুন কিনে দেওয়ার বায়না ধরলে মা মাহমুদা ক্ষুব্ধ হয়ে সন্তানকে শ্বাসরোধে হত্যা করেন। অবস্থা বেগতিক দেখে মা ছেলের লাশ খাটের নিচে লুকিয়ে রাখেন। সবাই যখন মাজহারের তালাশ করছিল মাহমুদাও বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজির অভিনয় করছিলেন। একপর্যায়ে তিনি নিজেই বলেন, মাজহার খাটের নিচে ঘুমিয়ে আছে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা