kalerkantho

বুধবার । ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৫ নভেম্বর ২০২০। ৯ রবিউস সানি ১৪৪২

শিশুসহ ১২ জনকে ধর্ষণ ও নিপীড়ন

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৮ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



১০ জেলায় আটজনকে ধর্ষণ, দুজনকে ধর্ষণচেষ্টা ও দুই শিশুকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে রাজবাড়ীতে দুই তরুণীকে (১৬ ও ১৮) অপহরণের পর ধর্ষণ এবং চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে এক কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করা হয়। বেশির ভাগ ঘটনা ঘটেছে গত শনিবার থেকে গতকাল মঙ্গলবার পর্যন্ত। রাজবাড়ীর একটি ঘটনা ঘটে ২৫ জানুয়ারি থেকে ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। এসব ঘটনায় গ্রেপ্তার হয়েছেন চারজন। এ ছাড়া রংপুরের হারাগাছে স্কুলছাত্রীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় আরো দুজনকে গতকাল ভোরে গ্রেপ্তার করেছে পিবিআই। হবিগঞ্জের বাহুবলে মাদরাসায় ছাত্রকে বলাৎকারের ঘটনায় অবশেষে মামলা করেছেন ছাত্রটির বাবা।

দুই তরুণীকে অপহরণের পর ধর্ষণ : রাজবাড়ী সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তরুণী (১৮) গতকাল জানান, তিনি গত ১৮ অক্টোবর বিকেলে তাঁর প্রেমিক রাজবাড়ীর সাভার গোপালবাড়ী গ্রামের লালন সরদারের ছেলে মাইক্রোবাসচালক সেলিম সরদারের (২০) সঙ্গে রাজবাড়ী শহরের লক্ষ্মীকোল পুরাতন হরিসভা এলাকায় দেখা করতে যান। তখন সেলিম তাঁকে অপহরণ করে একটি ঘরে আটকে রেখে সোমবার দুপুর পর্যন্ত ধর্ষণ করেন। সন্ধ্যায় তাঁকে বিয়ে করবেন বলে বাইরে গিয়ে আর ফেরেননি তিনি। অন্যদিকে রাজবাড়ী শহরের পান্না চত্বর এলাকা থেকে ২৫ জানুয়ারি সকালে অষ্টম শ্রেণির এক ছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্ষণ করা হয় বলে ছাত্রীটি ১৫ সেপ্টেম্বর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে মামলা করেছে। মামলাটি আদালতের নির্দেশে গত সোমবার রাজবাড়ী থানায় রেকর্ড করা হয়। আসামিরা হলেন সদর উপজেলার বড়ভবানীপুর গ্রামের সালাম মোল্লার ছেলে সাব্বির মোল্লা (২২), কল্যাণপুর গ্রামের আব্দুল কুদ্দুস শেখের ছেলে মামুন শেখ (৪০) ও উদয়পুর রাজাপুর গ্রামের মামুন ওরফে রাফুল শেখ (৩২)। মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে, ৫ সেপ্টেম্বর ছাত্রীটি ‘প্রেমিক’ সাব্বিরের কবল থেকে মুক্ত হওয়ার আগ পর্যন্ত তিনি তাকে ধর্ষণ ও শারীরিক নির্যাতন করেন। তাকে পাচারের চেষ্টাও চালান।

বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ২ : চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজারের চকরিয়ায় বাড়ি পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে বাঁশখালীর পুঁইছড়ি গ্রামের একটি জমিতে গত সোমবার রাতে এক কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করা হয়। ঘটনার পরপরই পুলিশ অভিযান চালিয়ে ধর্ষণে অভিযুক্ত দুজনকেই গ্রেপ্তার করেছে। তাঁরা হলেন বাঁশখালীর ছনুয়া ইউনিয়নের খুদুকখালী গ্রামের মৃত নুর আহাম্মদের ছেলে আবুল বশর (৪৫) এবং পূর্ব পুঁইছড়ি গ্রামের আব্দুল মালেকের ছেলে মো. জমির (৩৫)। এ ব্যাপারে কিশোরীর মা বাঁশখালী থানায় মামলা করেছেন। মেয়েটি চট্টগ্রাম শহরে গৃহপরিচারিকার কাজ করত। সেখান থেকে সে পূর্বপরিচিত বশরের সঙ্গে বাড়ি ফেরার পথে নির্যাতনের শিকার হয়।

আরো পাঁচজনকে ধর্ষণের অভিযোগ : বরিশালের আগৈলঝাড়ায় গত শনিবার এক কলেজছাত্রী প্রেমিকের সঙ্গে পূজা দেখতে গিয়ে প্রেমিক কর্তৃক ‘ধর্ষণের’ শিকার হয়েছেন। পরে তাঁদের তুলে নিয়ে বাকালহাটে একটি স্কুলকক্ষে আটক রেখে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টা চালান স্থানীয় চার যুবক। এ ঘটনায় ছাত্রী গতকাল আগৈলঝাড়া থানায় মামলা করেছেন। আসামিরা হলেন আগৈলঝাড়ার বাকাল গ্রামের অসিম মন্ডলের ছেলে ধর্ষণে অভিযুক্ত নয়ন মন্ডল এবং ধর্ষণচেষ্টায় অভিযুক্ত বাকাল গ্রামের সুন্দর আলী ফকিরের ছেলে ইমু ফকির, রুস্তম পাইকের ছেলে সুজন পাইক, অমল বাঘলের ছেলে সুমন বাঘল ও আব্দুল মালেক মিয়ার ছেলে পারভেজ মিয়া। ময়মনসিংহের ধোবাউড়ার গামারীতলা ইউনিয়নে সোমবার সকালে তৃতীয় শ্রেণির এক মাদরাসাছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। অভিযুক্ত আ. ছাত্তার (৬০) কামালপুর গ্রামের মৃত আ. খালেকের ছেলে। এ ঘটনায় শিশুটির মা গতকাল ধোবাউড়া থানায় অভিযোগ দিয়েছেন।

খুলনা নগরের মুজগুন্নী শেখপাড়ায় স্কুল শিক্ষার্থী দুই শিশুকে খাবারের লোভ দেখিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে ধর্ষণের অভিযোগে মাহিন্দ্রাচালক হিরু মিয়াকে (৫০) সোমবার রাতে পিটুনির পর পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী। এ ঘটনায় এক শিশুর বাবা রাতেই খালিশপুর থানায় মামলা করেছেন।

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের ইসলামপুরে সোমবার রাতে এক তরুণীকে (১৭) তুলে নিয়ে টিলার বাগানের ঘরে বেঁধে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। বাঁধা অবস্থায় তাকে উদ্ধার করেছে এলাকাবাসী। অভিযুক্ত জুবায়েদ আলী (২৫) রাজকান্দি গ্রামের বশির উল্লার ছেলে।

ধর্ষণচেষ্টাকালে ৯৯৯ নম্বরে ফোন, গ্রেপ্তার ২ : পিরোজপুরের ভাণ্ডারিয়ায় ধর্ম খালার বাসায় বেড়াতে এসে গতকাল ভোরে এক প্রতিবেশীর ধর্ষণচেষ্টার শিকার হন এক কলেজছাত্রী। এ সময় ছাত্রী ৯৯৯ নম্বরে কল দিলে পুলিশ তাত্ক্ষণিক ঘটনাস্থলে এসে অভিযুক্ত সোহেল মুন্সী (২৬) ও ধর্ষণচেষ্টায় সহায়তার অভিযোগে ছাত্রীর ধর্ম খালা ফিরোজা বেগমকে (৪৫) গ্রেপ্তার করেছে। সোহেল শহরের লক্ষ্মীপুরা মহল্লার মফিজুর রহমান ফিরোজ মুন্সীর ছেলে ও ফিরোজা লিয়াকত মার্কেট এলাকার মো. রফিকুল ইসলামের স্ত্রী। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ভাণ্ডারিয়া থানায় মামলা করেছেন।

তিন শিশুকে নিপীড়ন : দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে গত শুক্রবার ফুফার (৩৫) কাছে এক শিশু (৫) যৌন নিপীড়নের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ। এ ঘটনায় শিশুটির মা সোমবার রাতে ঘোড়াঘাট থানায় মামলা করেছেন। অভিযুক্তের বাড়ি গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার ভেলামারী কৌচা গ্রামে।

রংপুরের ঘটনায় আরো দুজন গ্রেপ্তার : রংপুরের হারাগাছে গত রবিবার ধর্ষণের ঘটনায় গতকাল লালমনিরহাট থেকে গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন লালমনিরহাট সদরের পূর্ব মাজাপাড়ার কবির মাহমুদের ছেলে বাবুল হোসেন (৩৮) ও পূর্ব থানাপাড়ার মৃত কাচু মিয়ার ছেলে আবুল কালাম আজাদ (৪০)। পিবিআইয়ের এক কর্মকর্তা জানান, জিজ্ঞাসাবাদে তাঁরা ধর্ষণে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছেন।

বাহুবলে অবশেষে মামলা : হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলার মিরপুর ইউনিয়নের মাদরাসায়ে আনোয়ারে মদিনা ফদ্রখলায় গত ২০ অক্টোবরের ঘটনায় সোমবার রাতে মামলা করা হয়। এতে প্রধান আসামি মাদরাসাটির মুহতামিম মাওলানা নোমান কবীর। আসামিকে খুঁজছে পুলিশ।

প্রতিবেদনটি তৈরিতে তথ্য দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট এলাকার কালের কণ্ঠ’র নিজস্ব প্রতিবেদক ও প্রতিনিধিরা]

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা