kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ১ ডিসেম্বর ২০২০। ১৫ রবিউস সানি ১৪৪২

নড়াইলে শিক্ষক হত্যা

দেবরকে সন্দেহ করছেন স্ত্রী

নড়াইল প্রতিনিধি   

২৭ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নড়াইল সদরের তুলরামপুর ইউনিয়নের বেনাহাটি গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত কলেজ শিক্ষক অরুণ কুমার রায় হত্যারহস্যের কিনারা করতে পারছে না তদন্ত সংস্থাগুলো। গত শনিবার রাতে তাঁর স্ত্রী নিভা রানী পাঠক অচেনা ব্যক্তিদের আসামি করে নড়াইল সদর থানায় মামলা করলেও পুলিশ এখনো কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বিপুল বিশ্বাস, বিধান রায় ও অরবিন্দু দাস নামের বাড়ির তিন কেয়ারটেকার এবং ভাইয়ের ছেলে রতন রায়সহ পাঁচজনকে পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে নজরদারিতে রেখেছে। এ হত্যারহস্য ভেদ করতে পুলিশের পাশাপাশি পিবিআই, সিআইডি, র‌্যাবসহ সরকারি সংস্থাগুলো তদন্ত করছে।

তবে অরুণ কুমার রায়ের স্ত্রী নিভা রানী পাঠকের সন্দেহের তীর তাঁর দেবর স্বপন রায়ের দিকে। তিনি বলেন, ‘আমার স্বামীর ছোট ভাই স্বপন রায়ের সঙ্গে জমি নিয়ে নড়াইল ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালে মামলা চলছে।’

পুলিশ ছাড়া অন্য সংস্থাগুলোর কারো কাছ থেকে খুনের মোটিভ সম্পর্কে কোনো বক্তব্য পাওয়া না গেলেও নাম প্রকাশ না করার শর্তে সরকারি এক সংস্থার কর্মকর্তা বলেন, প্রাথমিকভাবে যতটুকু ধারণা করা হচ্ছে তাতে মনে হচ্ছে, জমি ও সম্পত্তির কারণে খুন হতে পারেন অরুণ রায়, তবে তা কেবলই প্রাথমিক ধারণা।

মামলা এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, অরুণ রায় বাড়িতে একাই থাকতেন। স্ত্রী নিভা রানী পাঠক চাকরির সূত্রে খুলনাতে থাকেন। দুই ছেলেমেয়ে থাকেন ঢাকায়। দুর্গাপূজা উপলক্ষে নিভা রানী, তাঁর ছেলে ইন্দ্রোজিৎ রায় ও পুত্রবধূ জয়তী সরকার গত শুক্রবার সন্ধ্যায় বাড়িতে এসে অরুণ রায়ের গলাকাটা লাশ দেখতে পান।

নড়াইলের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জসিমউদ্দিন বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে জেলার গুরুত্বপূর্ণ পুলিশ কর্মকর্তাদের নিয়ে দফায় দফায় বৈঠক করছি। ঘটনার কোনো ক্লু বের করা সম্ভব হচ্ছে না।’

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা