kalerkantho

রবিবার। ৩ মাঘ ১৪২৭। ১৭ জানুয়ারি ২০২১। ৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

কক্সবাজার সৈকতে ভেসে গেল কিশোর

সেন্ট মার্টিন দ্বীপে আটকে পড়ারা ফিরেছে

বিশেষ প্রতিনিধি, কক্সবাজার   

২৬ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



কক্সবাজার সৈকতে গতকাল রবিবার দুপুরে গোসল করতে গিয়ে ঢেউয়ের তোড়ে ভেসে গেছে এক মাদরাসাপড়ুয়া কিশোর। সৈকতের কলাতলী পয়েন্টে এই ঘটনা ঘটে। সৈকতের লাইফগার্ড কর্মীরা জানান, জাহেদুল ইসলাম (১১) নামের ওই কিশোর তার তিন বন্ধুসহ সৈকতে গোসল করতে নামে। একপর্যায়ে তারা ঢেউয়ের তোড়ে ভেসে যেতে থাকলে লাইফগার্ড কর্মীরা তিনজনকে উদ্ধার করেন। হারিয়ে যায় জাহেদুল। স্থানীয় কলাতলী আদর্শ গ্রামের বাসিন্দা জাহেদুল মাদরাসার ছাত্র ছিল।

এদিকে সাগরে আবহাওয়া পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় সেন্ট মার্টিন দ্বীপে আটকে পড়া পর্যটকরা গতকাল কক্সবাজারে ফিরেছে। সৃষ্ট নিম্নচাপের প্রভাবে সমুদ্র উপকূলে প্রথমে ৩ নম্বর এবং পরে ৪ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত থাকায় গত ২১ অক্টোবর থেকে সেন্ট মার্টিন দ্বীপের সঙ্গে নৌচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। ফলে দ্বীপে বেড়াতে গিয়ে পাঁচ শতাধিক পর্যটক আটকে পড়ে।

টানা পাঁচ দিন পর আবহাওয়া পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ায় গতকাল সকাল থেকে যথারীতি কক্সবাজার ও টেকনাফ থেকে সেন্ট মার্টিন সমুদ্রপথে ট্রলার ও জাহাজ চলাচল শুরু হয়েছে। সেন্ট মার্টিন যাত্রীবাহী ট্রলার মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আলম জানিয়েছেন, সকাল ১০টার দিকে সেন্ট মার্টিন জেটি ঘাট থেকে পাঁচটি যাত্রীবাহী ট্রলারে করে স্থানীয় যাত্রীদের সঙ্গে দুই শতাধিক পর্যটক টেকনাফের উদ্দেশে সেন্ট মার্টিন ছেড়ে আসে।

সেন্ট মার্টিন দ্বীপ ইউনিয়ন পরিষদ মেম্বার মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ জানান, কক্সবাজার থেকে সেন্ট মার্টিন চলাচলকারী পর্যটকবাহী জাহাজ এমভি কর্ণফুলী যথারীতি দ্বীপে পৌঁছার পর বিকেল ৪টায় পর্যটক যাত্রীদের নিয়ে পুনরায় কক্সবাজারের দিকে রওনা দেয়। জাহাজটির গত রাত ১০টা নাগাদ কক্সবাজার ঘাটে পৌঁছার কথা। সন্ধ্যা ৭টায় জাহাজটির কক্সবাজার অফিসের ইনচার্জ হোসাইন ইসলাম বাহাদুর জানান, জাহাজ দ্বীপ ছেড়ে কক্সবাজারের পথে রয়েছে।

মন্তব্য