kalerkantho

মঙ্গলবার। ৫ মাঘ ১৪২৭। ১৯ জানুয়ারি ২০২১। ৫ জমাদিউস সানি ১৪৪২

পেশকারের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঢাকার পঞ্চম যুগ্ম মহানগর দায়রা জজ আদালতের বেঞ্চ সহকারী (পেশকার) জালাল হোসেনের বিরুদ্ধে আসামিকে দ্রুত জামিন করিয়ে দেওয়ার আশ্বাসে সাত লাখ টাকা ঘুষ নেওয়ার বিষয়ে ভুক্তভোগী এক নারী অভিযোগ করেছেন। গত ১৫ অক্টোবর ভুক্তভোগী ওই নারী ঢাকা আইনজীবী সমিতিতে একটি লিখিত অভিযোগ করেন। গতকাল মঙ্গলবার ভুক্তভোগীর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ বিষয়ে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ঢাকার মহানগর দায়রা জজকে একটি চিঠি দিয়েছেন।

চিঠিতে বলা হয়, ‘যেহেতু আইনজীবী ব্যতীত আদালতের কোনো কর্মচারী আসামিপক্ষে মামলা গ্রহণ, পরিচালনা, জামিন করানোসহ টাকা গ্রহণ করতে পারে না বিধায় অভিযোগের প্রেক্ষিতে বেঞ্চ সহকারী জালালের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণে মর্জি হয়।’

এই চিঠির একটি অনুলিপি সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল, আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং জালাল যে আদালতের পেশকার সেই পঞ্চম যুগ্ম জেলা জজকেও দেওয়া হয়েছে।

ভুক্তভোগী নারীর অভিযোগ থেকে জানা যায়, রামপুরা থানার ০৯(২)২০ মামলায় চলতি বছরের ৯ ফেব্রুয়ারি বিপ্লব হোসেন নামের এক ব্যক্তি গ্রেপ্তার হন। ছেলে বিপ্লবের জামিনের জন্য আইনজীবী নিয়োগ করেন তাঁর মা হামিদা বেগম। তবে দ্রুত জামিন করিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে আসামি বিপ্লবের মায়ের কাছ থেকে বিগত ২০ ফেব্রুয়ারি সাত লাখ টাকা ঘুষ নেন পেশকার জালাল। তবে আশ্বাস অনুযায়ী আসামিকে জামিন করাতে না পারায় হামিদা পেশকার জালালের কাছে সেই টাকা ফেরত চান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা