kalerkantho

মঙ্গলবার। ৫ মাঘ ১৪২৭। ১৯ জানুয়ারি ২০২১। ৫ জমাদিউস সানি ১৪৪২

মিয়া সেপ্পে বললেন

সংঘবদ্ধ ধর্ষণ বেড়ে বাংলাদেশের শান্তি পরিস্থিতি চ্যালেঞ্জে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বাংলাদেশে জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়কারী মিয়া সেপ্পে তরুণদের উদ্দেশে বলেছেন, ‘ক্রমবর্ধমান হারে বাড়তে থাকা সংঘবদ্ধ ধর্ষণের সংখ্যা বাংলাদেশে সামগ্রিক সুরক্ষা ও দীর্ঘস্থায়ী শান্তি পরিস্থিতিকে চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি করেছে। শান্তি রক্ষায় তাই যুবসমাজের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। একটি শান্তিপূর্ণ, সহনশীল ও অন্তর্ভুক্তিমূলক সমাজ গঠনে সম্মুখে থেকে আপনারাই নেতৃত্ব দেবেন।’

জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ রেজল্যুশনের ২০তম বার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল মঙ্গলবার এক ভার্চুয়াল বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন। ইউএন উইমেন বাংলাদেশ, সেন্টার ফর পিস অ্যান্ড জাস্টিস (সিপিজে), ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয় ও নারীপক্ষ যৌথভাবে এই বৈঠকের আয়োজন করে। ‘উইমেন। পিস। পাওয়ার : এ ইয়ুথ পারসপেক্টিভ’ শিরোনামের এই বৈঠকে শান্তিপূর্ণ, সংহতিশীল ও অন্তর্ভুক্তিমূলক সমাজের প্রচারে যুবসমাজের দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে আলোচনা করা হয়। 

নারীদের ডিজিটাল সুরক্ষা সম্পর্কিত একটি ভিডিও দিয়ে ভার্চুয়াল বৈঠকটি শুরু হয়। বৈঠকে তরুণ আলোচকরা শান্তি, সুরক্ষা এবং তাঁদের নিজ নিজ সম্প্রদায়ের এই এজেন্ডা এগিয়ে নেওয়ার ক্ষেত্রে তাঁদের ভূমিকা সম্পর্কে মতামত দেন। যুবসমাজের ক্ষমতার প্রতি দৃষ্টিভঙ্গি এবং সংঘাত রোধে কিভাবে তাঁরা একটি শান্তিপূর্ণ ও অন্তর্ভুক্তিমূলক সমাজ তৈরিতে অবদান রাখতে পারেন—তা-ও এই আলোচনায় উঠে আসে। জেন্ডার সমতার ধারণাটি ব্যাখ্যা করতে গিয়ে রোহিঙ্গা কমিউনিটি ইয়ুথ লিডার লাকি বলেন, ‘নারী হিসেবে আমাদের সোচ্চার হয়ে নিজেদের সমস্যার কথা বলতে হবে এবং সমাধানের জন্য পদক্ষেপ নিতে হবে।’

সিপিজের প্রকল্প সহকারী ও উইমেন পিস ক্যাফে, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সভাপতি মাহমুদা সুলতানা স্বর্ণার সঞ্চালনায় এই অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সেন্টার ফর পিস অ্যান্ড জাস্টিস, ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের রিসার্চ ফেলো ডক্টর সামিয়া হক ও শিরীন পারভীন হক। ইউএন উইমেন বাংলাদেশের কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টেটিভ শোকো ইশিকাওয়ার সমাপনী বক্তব্যের মাধ্যমে বৈঠকটি শেষ হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা