kalerkantho

মঙ্গলবার। ৫ মাঘ ১৪২৭। ১৯ জানুয়ারি ২০২১। ৫ জমাদিউস সানি ১৪৪২

চেনা পাঁচজন বাড়ির কাছ থেকে তুলে নেয় মেয়েটিকে

ধর্ষণবিরোধী আন্দোলনকারীর বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২১ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এলাকার সবাই পরিচিত। আর সময়ও মাত্র সন্ধ্যা ৭টা। কলেজছাত্রী একাই পাশের বাজার থেকে বাড়ি ফেরার সিদ্ধান্ত নেয়। তবে পৌনে এক কিলোমিটার এ পথের মাঝখানে পরিচিতদের মধ্য থেকেই পাঁচজন তাকে জোর করে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করেন।

টাঙ্গাইলের গোপালপুর উপজেলায় এ ঘটনা ঘটেছে গত সোমবার। গতকাল মঙ্গলবার এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। চিকিৎসক জানিয়েছেন, ভুক্তভোগী মেয়েটি মানসিকভাবে মারাত্মক বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে।

ধর্ষণের শিকার ছাত্রীটি টাঙ্গাইল শহরের একটি কলেজে একাদশ শ্রেণিতে পড়ে। কলেজ বন্ধ থাকায় সে মায়ের সঙ্গে গ্রামে থাকে। সোমবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে মোহনপুর বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিল সে। পথে পাশের কাগুজীআটা গ্রামের শফিকুল (২৫), এনামুল (২৮), জালাল (৩৮), খালেক (৪২) ও আলতাব আলী (৪২) তার মুখে গামছা পেঁচিয়ে নৌকায় তোলেন। পরে শফিকুলের বাড়িতে নিয়ে রাতভর ধর্ষণ করেন তাকে। ভোর ৫টার দিকে নৌকায় করে নদীর পারে ফেলে যান।

ভুক্তভোগী ছাত্রীটিকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। হাসপাতালের আবাসিক চিকিত্সা কর্মকর্তা (আরএমও) শফিকুল ইসলাম জানান, ভিকটিমের অবস্থা স্থিতিশীল। তবে মানসিকভাবে মারাত্মক বিপর্যস্ত।

গোপালপুর থানার ওসি মোশাররফ হোসেন জানিয়েছেন, আসামিদের ধরতে অভিযান চলছে।

বরিশালের আগৈলঝাড়ায় এক কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে তিতুমীর কলেজের ছাত্র সাজ্জাদ গাজীর বিরুদ্ধে। তিনি রাজধানীর শাহবাগে ধর্ষণবিরোধী আন্দোলনে যুক্ত ছিলেন বলে জানা গেছে।

সাজ্জাদ আগৈলঝাড়া উপজেলার বাগধা ইউনিয়নের আমবৌলা গ্রামের খোরশেদ গাজীর ছেলে। তাঁর সঙ্গে মাস ছয়েক আগে ওই কলেজছাত্রীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরপর বিয়ের প্রলোভন দিয়ে একাধিকবার মেয়েটিকে ধর্ষণ করেন। গত সোমবার সন্ধ্যায় আবারও ধর্ষণ করেন। মেয়েটির চিত্কারে স্থানীয়রা এসে সাজ্জাদকে ধরে ফেলে। রাতেই ভুক্তভোগী মেয়েটির মা মামলা করেন। গতকাল আদালত সাজ্জাদকে জেলহাজতে পাঠিয়েছেন।

প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলে এক বছর ধরে প্রতিবেশী এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ করে আসছিলেন বলে পাবনার ভাঙ্গুড়া পৌর শহরের মিলন হোসেনের (২২) বিরুদ্ধে অভিযোগ। বাড়িতে কারো না থাকার সুযোগে গত সোমবারও ছাত্রীটিকে ধর্ষণ করেন তিনি। প্রতিবেশীরা বিষয়টি টের পেয়ে তাঁকে আটক করেন। রাতেই ভুক্তভোগী মেয়েটির বাবা মামলা করেন। মিলনকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। তিনি পৌর এলাকার মেন্দা আদর্শ গ্রামের সাখাওয়াত আলীর ছেলে।

শরীয়তপুরের ডামুড্যায় এক গৃহবধূকে (১৯) শ্লীলতাহানির অভিযোগে দুজনের নামে মামলা হয়েছে। আসামিরা হলেন উপজেলার ধানকাঠি ইউনিয়নের চরধানকাঠি গ্রামের মৃত রুস্তম খাঁর ছেলে জাফর খাঁ (৩০) এবং কনেশ্বর ইউনিয়নের প্রিয়কাঠি গ্রামের খলিল হাওলাদারের ছেলে সাগর হাওলাদার (২৫)। গত সোমবার এ ঘটনা ঘটে। আসামিদের ধরতে অভিযান চলছে বলে জানিয়েছেন ডামুড্যা থানার ওসি মেহেদী হাসান।

সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার পরিবার পরিকল্পনা সহকারী রাজিউল ইসলাম ধর্ষণ মামলায় জেলহাজতে রয়েছেন। তিনি জেলার রায়গঞ্জ উপজেলার তেলকুপি নতুন পাড়া গ্রামের মৃত আব্দুস ছামাদের ছেলে। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে একটি মেয়েকে ধর্ষণ করেন বলে অভিযোগ। গত ১১ অক্টোবর পুলিশ তাঁকে আটক করে।

(প্রতিবেদনে তথ্য দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট এলাকার কালের কণ্ঠ’র প্রতিনিধিরা)

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা