kalerkantho

সোমবার । ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ৩০ নভেম্বর ২০২০। ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২

পিরোজপুরে চীনা নাগরিক হত্যা

ক্ষোভ থেকে ছিনতাই পরিকল্পনা বাধা দেওয়ায় ছুরিকাঘাত

পিরোজপুর প্রতিনিধি   

২১ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পিরোজপুরে চীনা নাগরিক প্যান ইয়াংজুন ওরফে লাওফান (৫৮) হত্যার মূল আসামি হোসেন সেখকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে বরিশাল রেঞ্জের ডিআইজি মো. শফিকুল ইসলাম সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান।

গ্রেপ্তারকৃত হোসেন সেখ (১৯) জেলা সদরের মরিচাল এলাকার ছোরাপ সেখের ছেলে। গত রবিবার তিনি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

এর আগে গত ১২ অক্টোবর গ্রেপ্তারকৃত সাব্বির সেখ (২০) একই এলাকার হায়দার আলী সেখের ছেলে।

ডিআইজি শফিকুল ইসলাম জানান, সাব্বির বেকুটিয়ায় কচা নদীর ওপর নির্মাণাধীন অষ্টম বাংলাদেশ-চীন মৈত্রী সেতুর একজন স্থানীয় শ্রমিক। হোসেন তাঁর সুপারিশে গত মে মাসে সেখানে কাজ পান। তবে তাঁর কাজ ভালো না হওয়ায় সেতুর প্রধান টেকনিশিয়ান চীনা নাগরিক ইয়াংজুন তাঁকে বাদ দেন। হোসেন তখন তাঁর কাজের জন্য ব্যবহৃত হেলমেটটি নিয়ে যান। পরের মাসে বেতন দেওয়ার সময় ইয়াংজুন হেলমেট বাবদ ৫০০ টাকা কেটে রাখেন। এ ক্ষোভ থেকে ইয়াংজুনের কাছ থেকে টাকা ছিনতাইয়ের পরিকল্পনা করা হয়।

ডিআইজি আরো জানান, ৭ অক্টোবর সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ইয়াংজুন শ্রমিকদের বেতন দিতে কয়েকটি ব্যাগে করে দুই লাখ ৫৩ হাজার ২৩০ টাকা নিয়ে বাইসাইকেলে করে সেতুর দিকে যাচ্ছিলেন। পথে হোসেন একটি ব্যাগ ছিনতাইয়ের চেষ্টা করেন। ইয়াংহজুন বাধা দেওয়ায় তাঁকে ছুরিকাঘাত করে ব্যাগটি নিয়ে পালিয়ে যান। আহত ইয়াংজুন পিরোজপুর জেলা হাসপাতালের চিকিত্সাধীন অবস্থায় মারা যান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা