kalerkantho

বুধবার । ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৫ নভেম্বর ২০২০। ৯ রবিউস সানি ১৪৪২

নিক্সন ও বিরোধীদের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি

সদরপুরে ১৪৪ ধারা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর   

১৮ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ফরিদপুরের সদরপুরে এমপি নিক্সন চৌধুরীর সমর্থক ও বিরোধীদের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচিতে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়। গতকাল শনিবার সকাল ৯টা থেকে আজ রবিবার সকাল ৯টা পর্যন্ত সদরপুর উপজেলা চত্বর, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও সদরপুর সরকারি কলেজসংলগ্ন এক বর্গকিলোমিটার এলাকায় ১৪৪ ধারা বলবৎ থাকবে। এর ফলে গতকাল নির্ধারিত জায়গা থেকে এক কিলোমিটার দূরে স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য মজিবুর রহমান ওরফে নিক্সন চৌধুরীর সমর্থকরা বিক্ষোভ মিছিল করেছে। এ সময় তাঁর বিরুদ্ধে দায়ের মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে স্লোগান দেয় মিছিলকারীরা। তবে নিক্সনবিরোধী পক্ষ কোনো কর্মসূচি পালন করেনি।

এদিকে পরিস্থিতি স্থানীয় প্রশাসনের সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে উল্লেখ করে প্রশাসন সূত্র জানায়, একই স্থানে ফরিদপুর-৪ আসনের এমপি নিক্সনের পক্ষে-বিপক্ষে সমাবেশ ডাকায় শান্তি-শৃঙ্খলা রক্ষায় প্রশাসন এ সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয়েছে।

গত ১০ অক্টোবর চরভদ্রাসন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদের উপনির্বাচনে বিজয়ী হন আওয়ামী লীগ প্রার্থী কাউসার হোসেন। তিনি সাবেক এমপি ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্যাহর অনুগত ছিলেন। কিন্তু নির্বাচনের সপ্তাহ দুয়েক আগে কাউসার সাবেক এমপি জাফর উল্যাহর পক্ষ ছেড়ে বর্তমান এমপি নিক্সন চৌধুরীর পক্ষে যোগ দেন।

উপনির্বাচনের দিন কাউসার সমর্থক কয়েকজন জাল ভোট দিতে গেলে দায়িত্বরত ম্যাজিস্ট্রেট বাধা দেন। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এমপি নিক্সন চৌধুরী নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেসমিন সুলতানাকে ফোন করে গালাগাল করেন। পরে রাতে ফল ঘোষণার পর জেলা প্রশাসককে নিয়েও বাজে মন্তব্য করেন এমপি নিক্সন। গত বৃহস্পতিবার চরভদ্রাসন থানায় নিক্সন চৌধুরীর বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করায় নির্বাচন কমিশন মামলা করেন। এই মামলাকে কেন্দ্র করে ফরিদপুর-৪ আসনের আওতাধীন তিন উপজেলায় আগে থেকেই দুই ভাগে বিভক্ত আওয়ামী লীগ মুখোমুখি অবস্থান নেয়। বৃহস্পতিবার পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি পালন করে দুই পক্ষ। এরই ধারাবাহিকতায় মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে নিক্সন সমর্থকরা শনিবার উপজেলা পরিষদ চত্বরে মানববন্ধন ও সমাবেশের কর্মসূচি ঘোষণা করে। পাল্টা কর্মসূচি হিসেবে নিক্সনবিরোধী পক্ষ জেলা প্রশাসক ও ইউএনওকে গালাগালের প্রতিবাদে ও এমপি নিক্সনের বিচারের দাবিতে একই জায়গায় সমাবেশের ডাক দেয়। দুই পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে স্থানীয় প্রশাসন উপজেলা সদরের এক বর্গকিলোমিটার এলাকাজুড়ে সব ধরনের সমাবেশ নিষিদ্ধ ঘোষণা করে শনিবার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টা ১৪৪ ধারা জারি করে। ১৪৪ ধারার আওতাভুক্ত এলাকার মধ্যে রয়েছে সদরপুর উপজেলা চত্বর, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও সদরপুর সরকারি কলেজসংলগ্ন এলাকা।

ভাঙ্গা, সদরপুর ও চরভদ্রাসন—এ তিন উপজেলা নিয়ে গঠিত ফরিদপুর-৪ সংসদীয় আসন। ২০১৪ ও ২০১৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ আসন থেকে আওয়ামী লীগ প্রার্থীকে হারিয়ে নিক্সন চৌধুরী সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ওই দুইবার এ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ছিলেন সাবেক সংসদ সদস্য ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্যাহ।

মন্তব্য