kalerkantho

শুক্রবার । ৮ মাঘ ১৪২৭। ২২ জানুয়ারি ২০২১। ৮ জমাদিউস সানি ১৪৪২

রোহিঙ্গাসংকট নিয়ে পশ্চিমাদের ভাবনায় দীর্ঘমেয়াদি সহায়তা

বাংলাদেশের গুরুত্ব প্রত্যাবাসনে

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

১৩ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রোহিঙ্গাদের জন্য আগামী ১০ বছরের মানবিক সহায়তার বিষয়ে আলোচনার জন্য একটি অনুষ্ঠান আয়োজন করছে যুক্তরাষ্ট্রসহ কয়েকটি পশ্চিমা দেশ। বাংলাদেশকে সেই অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হলেও বিষয়বস্তু এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে জানানো হয়নি। তবে দীর্ঘ মেয়াদে সহায়তা পরিকল্পনার প্রস্তাবে বাংলাদেশ রাজি নয়। রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে প্রত্যাবাসনেই জোর দেওয়া হচ্ছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন সাংবাদিকদের বলেন, ‘শুনতে পেলাম তারা ১০ বছরের মানবিক সাহায্য নিয়ে আলাপ করবে। কিন্তু আমরা এখন এক বছরের জন্য সাহায্য নিচ্ছি। দীর্ঘমেয়াদি বিষয়ে আমাদের কোনো আগ্রহ নেই। যত দ্রুত সম্ভব রোহিঙ্গাদের বিদায় করতে চাই আমরা। ১০ বছরে কে কত টাকা দেবে সে বিষয়ে আমরা আগ্রহী নই।’

জানা গেছে, আগামী ২২ অক্টোবর রোহিঙ্গাদের জন্য টেকসই সহায়তাবিষয়ক আলোচনা অনুষ্ঠানটির আয়োজক যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। অন্যদের মধ্যে রয়েছে যুক্তরাজ্য, ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) ও জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থা (ইউএনএইচসিআর)। কূটনৈতিক সূত্রগুলো বলছে, দীর্ঘমেয়াদি সহায়তা পরিকল্পনার ভাবনার অর্থ হলো নিকটতম সময়ের মধ্যে এ সংকটের সমাধান হচ্ছে না তা ধরে নেওয়া। বাংলাদেশ বরাবরই দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনার বিরোধিতা করে প্রত্যাবাসনের ওপর জোর দিচ্ছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘তারা যে বিষয়গুলো বলছে সেটি আমাদের সঙ্গে মিলছে না। রোহিঙ্গা পুনর্বাসনে তাদের মাল্টি ইয়ার পরিকল্পনায় আমরা আগ্রহী নই। তারা বলছে আঞ্চলিক দেশগুলো রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেবে। কিন্তু আমরা মনে করি, এটি এখন বৈশ্বিক সমস্যা এবং সবার এগিয়ে আসা উচিত।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা