kalerkantho

শুক্রবার । ৮ মাঘ ১৪২৭। ২২ জানুয়ারি ২০২১। ৮ জমাদিউস সানি ১৪৪২

পাঁচ বছরে ৪৬৬২ জনকে ধর্ষণ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গেল পাঁচ বছরে দেশে চার হাজার ৬৬২ জন নারী ও শিশুকে ধর্ষণ করা হয়েছে। এর মধ্যে শিশুর সংখ্যা সাড়ে তিন হাজারেরও বেশি। যা মোট ধর্ষণ ঘটনার ৭৫ শতাংশ। এসব ঘটনায় মামলা হয়েছে তিন হাজার ১৪০টি। আর ধর্ষণের ক্ষত নিয়েও মামলা করতে পারেননি এক হাজার ৫১৪ নির্যাতিতা। ২০১৬ সালের জানুয়ারি থেকে এ বছরের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত আইন ও সালিশ কেন্দ্রের জরিপ পর্যালোচনা করে এ তথ্য মিলেছে। তবে ধর্ষণের শিকার হওয়ার পর দুই-তৃতীয়াংশ নারী ও শিশুর পক্ষ থেকে মামলা করা হলেও বিচার পাওয়ার হার সবচেয়ে কম। বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট সালমা আলীর মতে, গত পাঁচ বছরে ধর্ষণের মুখোমুখি হওয়া নারী ও শিশুর মধ্যে বিচার পেয়েছে ১.৩ শতাংশ।

জরিপ অনুযায়ী, ২০২০ সালের জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ধর্ষণ করা হয়েছে ৯৭৫ জনকে, এর মধ্যে শিশু ৬২৭ জন। এসব ঘটনায় মামলা করে ৭১৯ জন। ধর্ষণের শিকার হয়েও মামলা করেনি ২৫৬ জন। পাঁচ বছরের মধ্যে সবচেয়ে বেশি এক হাজার ৪১৩ জন নারী ও শিশু ধর্ষণের শিকার হয় ২০১৯ সালে। এর মধ্যে শিশুর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি ৯৮৬ জন। এসব ঘটনায় মোট মামলা হয়েছে ৯৯৯টি, যার মধ্যে শুধু শিশু ধর্ষণের ঘটনায় মামলা হয় ৭২১টি। আর ধর্ষণের শিকার হয়েও ওই বছর মামলা করেনি ৪১৪ জন। ২০১৮ সালে ৯৩২ জন ধর্ষণের শিকার হয়, যার মধ্যে মামলা হয় ৫০৯টি। ওই বছর ধর্ষণের শিকার হয়েও মামলা করেনি ২১৮ জন। ২০১৭ সালে ৮১৮ জন ধর্ষণের শিকার হয়, এর মধ্যে ৫১৭ জন মামলা করে। আর ২০১৬ মালে ধর্ষণের শিকার হয় ৭২৪ জন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা