kalerkantho

বুধবার । ১৩ মাঘ ১৪২৭। ২৭ জানুয়ারি ২০২১। ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪২

ইয়াবা দিয়ে ছাত্রকে ফাঁসানো সেই এসআই চাকরিচ্যুত

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

৮ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



চট্টগ্রাম মহানগরীর ডবলমুরিং থানা এলাকায় ইয়াবা দিয়ে এক স্কুলছাত্রকে ফাঁসানো, পরবর্তী সময়ে সেই ছাত্রের মা-বোনের সঙ্গে অশোভন আচরণ ও শেষে স্কুলছাত্রের আত্মহননের ঘটনায় দায়ী উপপরিদর্শক হেলাল উদ্দিনকে চাকরিচ্যুতি করা হয়েছে।

স্কুলছাত্র আত্মহননের ঘটনায় দায়ের করা বিভাগীয় মামলায় উপপরিদর্শক হেলালের দায় প্রমাণিত হওয়ার পর তদন্ত কমিটির সুপারিশের ভিত্তিতে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন মহানগর পুলিশের উপকমিশনার (সদর) আমীর জাফর। তিনি বলেন, ‘স্কুলছাত্র আত্মহনের ঘটনায় গঠিত তদন্ত কমিটি এ ঘটনায় উপপরিদর্শক হেলাল খানের দায় পেয়েছে।’

গত ১৬ জুলাই রাতে বাদামতলীর বড় মসজিদ গলির বাসায় উঁকিঝুঁকি দেন সাদা পোশাকধারী এক ব্যক্তি। তাঁকে চোর মনে করে স্কুলছাত্র সালমান ইসলাম মারুফ চিৎকার দেয়। এতে ওই ব্যক্তি স্থানীয়দের হাতে ধরা পড়েন এবং উত্তম-মধ্যম পিটুনির শিকার হন। পরে ঘটনাস্থলে পৌঁছে সাদা পোশাকে হেলাল উদ্দিন নিজকে পুলিশ পরিচয় দেন এবং উঁকি দেওয়া ব্যক্তিকে সোর্স বলে জানান। তখন স্কুলছাত্র মারুফের মা-বোন হেলাল খানের কাছে ক্ষমা চেয়ে বলেন, কয়েক দিন আগে মারুফের বাইকেল ও মোবাইল ফোন চুরি হয়েছে। এ কারণে সে উঁকিঝুঁকি দেওয়া ব্যক্তিকে চোর সন্দেহ করে চিৎকার দিয়েছে।

মারুফের মা-বোনের ক্ষমা প্রার্থনাকে অগ্রাহ্য করে হেলাল মারুফকে ইয়াবা পাচারকারী দাবি করে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করেন। তখন ঘটনাস্থল থেকে কৌশলে মারুফ সরে যায়। এতে আরো ক্ষিপ্ত হয়ে এসআই হেলাল মারুফের মা-বোনকে গ্রেপ্তার করে থানায় নেওয়ার চেষ্টা করেন। এ সময় তার মা-বোনের শ্লীলতাহানির অভিযোগও ওঠে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা