kalerkantho

মঙ্গলবার । ১১ কার্তিক ১৪২৭। ২৭ অক্টোবর ২০২০। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

কাঁঠালবাড়ী শিমুলিয়া নৌপথ

আবার ফেরি বন্ধ

মুন্সীগঞ্জ ও শিবচর (মাদারীপুর) প্রতিনিধি   

২ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



আবার ফেরি বন্ধ

মুন্সীগঞ্জের লৌহজংয়ের শিমুলিয়া ও মাদারীপুরের শিবচরের কাঁঠালবাড়ী নৌপথে ফেরি চলছে আর বন্ধ করে দিতে হচ্ছে। নাব্যতা সংকটের কারণে গত কোরবানির ঈদের আগ থেকেই বিরাজ করছে এই অবস্থা। গত সেপ্টেম্বর মাসে চার দফায় অন্তত ১৫ দিন বন্ধ ছিল ফেরি চলাচল। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে এই পথের নৌ চ্যানেলের প্রবেশমুখে একই কারণে একটি ফেরি ডুবোচরে আটকে যায়। পরে সকাল ১১টা থেকে আবার ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ফলে দুর্ভোগে পড়েছে যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকরা। উভয় ঘাটে আটকা পড়েছে কয়েক শ যানবাহন।

বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশনের (বিআইডাব্লিউটিসি) শিমুলিয়া ঘাটের সহকারী মহাব্যবস্থাপক মো. শফিকুল ইসলাম জানান, নাব্যতা সংকটের কারণে বর্তমানে শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌপথে কয়েকটি ছোট ফেরি চলাচল করছিল। গতকাল নৌপথের চ্যানেলে পলি জমে পানির গভীরতা কমে যাওয়ায় ফেরি চালানো যাচ্ছিল না। সকাল সাড়ে ৬টায় কুমিল্লা নামের ফেরিটি কিছু যানবাহন ও যাত্রী নিয়ে কাঁঠালবাড়ী ঘাট থেকে শিমুলিয়া ঘাটে যাচ্ছিল। পদ্মা সেতুর ২৫ নম্বর পিলার পার হয়ে কিছু দূরে চায়না চ্যানেলে ফেরিটি ডুবোচরে আটকে যায়। সকাল ১০টার দিকে ফেরির লোকজন এটিকে উদ্ধার করে শিমুলিয়া ঘাটে নিয়ে যায়। এরপর ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়।

শফিকুল ইসলাম ও বিআইডাব্লিউটিসি কাঁঠালবাড়ী ফেরিঘাটের ব্যবস্থাপক আব্দুল আলিম জানান, শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌপথে খননকাজ (ড্রেজিং) চলছে। ড্রেজিং করে বিআইডাব্লিউটিএ নাব্যতা ফিরিয়ে আনলে আবার ফেরি চলাচল শুরু হবে।

মাওয়া ট্রাফিক পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ টিআই হিলাল উদ্দিন জানান, শিমুলিয়া ঘাটে পারের অপেক্ষায় থাকা গাড়ির বেশির ভাগই যাত্রীবাহী। এসব গাড়িকে পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে পারাপারের জন্য বলা হয়েছে।

কাঁঠালবাড়ী ফেরিঘাটের টিআই মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘ফেরি বন্ধ হওয়ার আগে যানবাহনের ভালো চাপ ছিল। ফেরি চলাচল স্থগিত রাখার পর আমরা হ্যান্ড মাইকিং করে যাত্রী ও পরিবহন শ্রমিকদের বিকল্প দৌলতদিয়া-পাটুরিয়া নৌপথ ব্যবহারের অনুরোধ জানিয়েছি। এরপর যানবাহনের চাপ কমতে থাকে। তবে, এখনো অর্ধশত পণ্যবাহী ট্রাক টার্মিনালে রয়েছে।’

শিমুলিয়া থেকে বরিশালগামী প্রাইভেট কারের যাত্রী কাইয়ুম ব্যাপারী বলেন, ‘সকাল ১০টা থেকে ঘাটে ফেরি পারাপারের জন্য বসে ছিলাম। ১২টার পরে শুনি ফেরি আর চলবে না। এখন গাড়ি নিয়ে কিভাবে পদ্মা পাড়ি দেব? ঘাটের লোকজন পাটুরিয়া হয়ে যেতে বলে। কিন্তু সেটা অনেক দীর্ঘ পথ।’

কাঁঠালবাড়ী ফেরিঘাটে পণ্যবাহী ট্রাকের চালক দিদারুল আলম বলেন, ‘এক সপ্তাহ ধরে প্রতি ফেরিতে একটা বা দুইটা ট্রাক লোড করা হয়েছে। ছোট গাড়িতে ভরা থাকে ফেরি। ট্রাক ফেরিতে কম তোলায় আমরা ঘাটে আটকা ছিলাম। এখন আবার বন্ধ ফেরি চলাচল। কবে পদ্মা পাড়ি দিতে পারব কেউ বলতে পারছে না।’

মন্তব্য