kalerkantho

রবিবার । ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭। ২৯ নভেম্বর ২০২০। ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২

যোগাভ্যাস

প্রারম্ভিক শলভাসন

১ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রারম্ভিক শলভাসন

যাঁরা নতুনভাবে আসন করা শুরু করেছেন, তাঁরা সহজভাবে আসনটি অভ্যাস করে শারীরিক গঠনকে মজবুত করতে পারবেন

পদ্ধতি

♦ উপুড় হয়ে ম্যাটের ওপর শুয়ে পা দুটি একসঙ্গে টান টান করে রাখুন। দুই হাত কানের পাশ দিয়ে মাথার ওপরে সোজা করে ছড়িয়ে দিন। হাতের চেটো থাকবে মাটির ওপর। চিবুক ও কপাল মাটিতে ঠেকিয়ে রাখুন। এটিই শুরুর অবস্থান।

♦ ধীরে ধীরে শ্বাস নিতে নিতে বাঁ পা, ডান হাত ও মাথা একই সঙ্গে মাটি থেকে ওপরের দিকে তুলুন। খেয়াল রাখবেন, হাত ও পা যেন সোজা থাকে, ভাঁজ হয়ে না যায়।

♦ এই অবস্থানে থাকুন ১০-২০ সেকেন্ড। তবে খেয়াল রাখবেন, যেন শরীরে বাড়তি চাপ না পড়ে।

♦ এবার ধীরে ধীরে শ্বাস ছাড়তে ছাড়তে হাত, পা ও মাথা নিচে নামিয়ে শুরুর অবস্থানে ফিরে আসুন।

একই পদ্ধতিতে শ্বাস নিতে নিতে ডান পা, বাঁ হাত ও মাথা ওপরের দিকে তুলুন। কিছুক্ষণ এই অবস্থানে থেকে শুরুর ভঙ্গিতে ফিরে আসুন। এক রাউন্ড সম্পূর্ণ হলো।

♦ আসনটি অভ্যাস করার সময় কোনাকুনি হাতের আঙুল ও পায়ের বুড়ো আঙুল পর্যন্ত স্ট্রেচ বা টান অনুভব করুন।

♦ এভাবে তিন রাউন্ড অভ্যাস করতে হবে। প্রতিটি রাউন্ড অভ্যাসের পর ১০-২০ সেকেন্ড বিশ্রাম নেবেন।

সতর্কতা

গুরুতর কোনো শারীরিক সমস্যা থাকলে আসন শুরু করার আগে চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলে নেবেন।

উপকারিতা

নিয়মিত প্রারম্ভিক শলভাসন অভ্যাস করলে মেরুদণ্ডসংলগ্ন পেশি ও নার্ভ উজ্জীবিত হয়। বিশেষ করে কোমরের দিকের শক্ত ভাব চলে যায়। ফলে পিঠ ও কোমরের স্টিফনেস চলে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে নমনীয়তা ফিরে আসে। আসনটির অন্তিম অবস্থানে একই সঙ্গে হাত, পা, মাথা ও শরীরের উপরিভাগ নির্দিষ্টভাবে ধরে রাখার সঙ্গে সঙ্গে শ্বাস-প্রশ্বাস নিয়ন্ত্রণ করলে শরীরে সাযুজ্য ফিরে আসে। প্রথম দিকে কিছুটা অসুবিধা হলেও নিয়মিত অভ্যাস করলে আসনটি অভ্যাস করা কঠিন নয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা