kalerkantho

বুধবার । ৫ কার্তিক ১৪২৭। ২১ অক্টোবর ২০২০। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

যৌন নির্যাতনের শিকার তিন শিশু

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দিনাজপুরের পার্বতীপুরে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণচেষ্টার ঘটনায় তীর, ধনুক, বল্লম নিয়ে তল্লাশি করে অভিযুক্তকে আটক করেছে আদিবাসীরা। এ ছাড়া নওগাঁর বদলগাছীতে চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রীকে যৌন হয়রানি এবং নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিস্তারিত কালের কণ্ঠ’র প্রতিনিধিদের খবরে-

পার্বতীপুর (দিনাজপুর) : উপজেলা সদর থেকে ৩২ কিলোমিটার দূরে বাড়ির দেয়াল টপকে এক আদিবাসী শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা ঘটেছে। গত রবিবার গভীর রাতে মধ্যপাড়া পাথরখনিসংলগ্ন শুয়ারকাটি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ সময় ভুক্তভোগী চিৎকার দিলে অভিযুক্ত খটকার ডাঙ্গা গ্রামের ওসমান গনি সাইকেল রেখে পালিয়ে যায়। পরে গ্রামবাসী প্রায় দুই ঘণ্টা ধরে তীর, ধনুক, বল্লম নিয়ে তল্লাশি করে জঙ্গল থেকে ওসমানকে আটক করে। গতকাল সকালে অভিযুক্তকে মধ্যপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে সোপর্দ করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন। এ ঘটনায় জড়িতের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন বাংলাদেশ আদিবাসী পরিষদের সভাপতি রবীন্দ্র নাথ সরেন।

বদলগাছী (নওগাঁ) : গত শুক্রবার সকালে উপজেলার আধাইপুর ইউপির সেনপাড়া গ্রামে ওই ছাত্রী বাড়িতে একাই ছিল। এ সময় প্রতিবেশী সামসুল আলম (৫৮) ঘরে ঢুকে যৌন নির্যাতন করে। পরে ভুক্তভোগীর মা ও দাদি বাড়িতে এলে বিষয়টি জানাজানি। পরে ওই দিন সন্ধ্যায় গ্রামের পাশে বসে থাকা সামসুলকে মারধর করে ওই ছাত্রীর পরিবারের লোকজন। এ সময় সামসুলের স্বজনরা ছুটে এসে ভুক্তভোগীর পক্ষের লোকজনকে মারধর করে। এ ঘটনায় আহত ছাত্রীর চাচাতো ভাই রুহল আমিনকে বদলগাছী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। বিষয়টি সালিসের মাধ্যমে মীমাংসার চেষ্টা করা হয়। পরে গতকাল থানায় মামলা করেছেন ওই ছাত্রীর বাবা।

নোয়াখালী : কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চরএলাহী ইউনিয়নে এক শিশুকে (১০) ধর্ষণের অভিযোগে গতকাল জয়নাল আবেদিন (২৫) নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। জয়নাল ওই শিশুর জ্যাঠাতো বোনের স্বামী।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত রবিবার ওই শিশুর অসুস্থ ছোট বোনকে বসুরহাট হাসপাতালে ভর্তি করান মা-বাবা। মা-বাবা চলে যাওয়ায় আট বছরের ছোট ভাইকে নিয়ে বাড়িতে ছিল শিশুটি। গভীর রাতে প্রতিবেশী তাদের ঘরে ঢুকে ধর্ষণ করে। সকালে বোনকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখে পরিবারের লোকজনকে বিষয়টি জানায় তার ছোট ভাই।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা