kalerkantho

রবিবার । ৯ কার্তিক ১৪২৭। ২৫ অক্টোবর ২০২০। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

সংক্ষিপ্ত
নাগরিক শোকসভা

দেশকে অগ্রসর করতে আমৃত্যু সচেষ্ট ছিলেন তারিক আলী

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দীর্ঘ সময় থেকে দেশের রাজনীতিতে গণতন্ত্র, সংস্কৃতি ও সৃজনশীলতার চর্চা যথাযথ না হওয়ার ফলে সমাজে প্রগতিচেতনার চিন্তকের সংখ্যা ক্ষীণ হওয়ার পথে। রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের বাইরে সংস্কৃতি ও উদারতার চর্চায় মূলধারার রাজনীতিকে অগ্রসর করে নিতে উৎসাহ জোগাতেন জিয়াউদ্দিন তারিক আলী। একজন সত্যিকারের সংস্কৃতসেবী হিসেবে দেশকে অগ্রসর করতে আমৃত্যু সচেষ্ট ছিলেন তিনি। এমন মানুষের মৃত্যু সমাজের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি। দেশপ্রেমিক মানুষের দুষ্প্রাপ্যতা অসাম্প্রদায়িক স্বদেশ প্রতিষ্ঠার অগ্রযাত্রাকে ব্যাহত করবে। সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনের সভাপতি, সাম্প্রদায়িকতা-জঙ্গিবাদবিরোধী মঞ্চের যুগ্ম সমন্বয়ক ও মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের অন্যতম ট্রাস্টি সদ্যঃপ্রয়াত জিয়াউদ্দিন তারিক আলীর মৃত্যুতে গতকাল শনিবার বিকেল ৪টায় ভার্চুয়াল নাগরিক শোকসভায় বক্তারা এই মন্তব্য করেন। সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের অন্যতম ট্রাস্টি ডা. সারওয়ার আলীর সভাপতিত্বে শোকসভায় বক্তব্য দেন ঐক্য ন্যাপ সভাপতি পঙ্কজ ভট্টাচার্য, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন এমপি, মানবাধিকারকর্মী সুলতানা কামাল, নাট্যজন রামেন্দু মজুমদার, আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, সাম্প্রদায়িকতা ও জঙ্গিবাদবিরোধী মঞ্চের সদস্যসচিব অধ্যাপক ড. নূর মোহাম্মদ তালুকদার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক এম এম আকাশ, নারী নেত্রী রোকেয়া কবির, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্ত, আদিবাসী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক সঞ্জীব দ্রং, মানবাধিকারকর্মী অ্যারোমা দত্ত, সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনের সাধারণ সম্পাদক সালেহ আহমেদ প্রমুখ। সভা সঞ্চালনা করেন সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনের প্রেসিডিয়াম সদস্য খুশী কবির।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা