kalerkantho

বুধবার । ৫ কার্তিক ১৪২৭। ২১ অক্টোবর ২০২০। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

মসজিদে বিস্ফোরণ

দগ্ধ আরো দুজনসহ মৃত্যু বেড়ে ৩৩

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২০ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় বাইতুস সালাত জামে মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় অগ্নিদগ্ধ আরো দুজনের মৃত্যু হয়েছে। তাঁদের নাম আব্দুল আজিজ (৪০) ও মো. ফরিদ (৫৫)। শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে টানা ১৬ দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়েছেন তাঁরা। গতকাল শনিবার শেষে হেরে যান তাঁরা। মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় এই দুজনসহ এ পর্যন্ত মারা গেছেন ৩৩ জন। এ ঘটনায় অগ্নিদগ্ধ আরো তিনজন বর্তমানে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন।

ইনস্টিটিউটের প্রধান সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন এই দুজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘তাঁদের বাঁচানোর সব চেষ্টা করা হয়েছে। দুর্ভাগ্য, শেষ পর্যন্ত বাঁচানো গেল না। এই নিয়ে ওই আগুনের ঘটনায় দগ্ধ ৩৩ জনের মৃত্যু হলো। আরো তিনজন ইনস্টিটিউটে ভর্তি আছেন। তাঁদের শারীরিক অবস্থাও আশঙ্কাজনক।’

জানা গেছে, নিহতদের মধ্যে শরীয়তপুরের নড়িয়া কেদারপুর গ্রামের মনু মিয়ার ছেলে আজিজের দেহের ৪৭ শতাংশ পুড়ে গিয়েছিল। আর ময়মনসিংহের ত্রিশালের আব্দুর রহমানের ছেলে ফরিদের দেহের ৫০ শতাংশ পুড়ে গিয়েছিল। দুজনের শ্বাসনালি পুড়ে যাওয়ায় অবস্থা সংকটাপন্ন ছিল বলে চিকিৎসকরা জানান। বিস্ফোরণের সময় আজিজ মসজিদের সামনে তাঁর লন্ড্রির দোকানে কাজ করছিলেন। বিস্ফোরণে দোকানের গ্লাস ভেঙে আগুনের হলকা তাঁর দোকানে ঢুকে পড়ে। আর ফরিদ ত্রিশাল থেকে মেয়ের বাড়িতে বেড়াতে এসে নামাজ পড়তে ওই মসজিদে গিয়েছিলেন।

গত ৪ সেপ্টেম্বর রাত পৌনে ৯টায় নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার পশ্চিমতল্লা এলাকার বাইতুস সালাত জামে মসজিদে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এরপর দগ্ধদের মধ্যে ৩৭ জনকে উদ্ধার করে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা