kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৪ আশ্বিন ১৪২৭ । ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০। ১১ সফর ১৪৪২

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের জরিপ

ঢাকায় এডিসের ৫১% প্রজনন বহুতল ভবনে

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৪ আগস্ট, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন এলাকায় এডিস মশার যে প্রজনন উত্স, তার ৫১.৩৪ শতাংশই বহুতল ভবনে। এ ছাড়া নির্মাণাধীন ভবনে ২০.৩২ শতাংশ, বস্তি এলাকায় ১২.৮৩ শতাংশ, বহুতল নয় এমন ভবনে ১২.৫৭ শতাংশ এবং পরিত্যক্ত জায়গায় ২.৯৪ শতাংশ প্রজনন হয়ে থাকে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার মৌসুমি জরিপে এই চিত্র পাওয়া গেছে।

গতকাল রাজধানীর মহাখালীতে ‘বাংলাদেশ কলেজ অব ফিজিশিয়ানস অ্যান্ড সার্জনস (বিসিপিএস)’ মিলনায়তনে আনুষ্ঠানিকভাবে জরিপের ফল জানানো হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সমন্বয়ক (এসডিজি) জুয়েনা আজিজ। সভাপতিত্ব করেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা. শাহনীলা ফেরদৌসী। জরিপের ফল তুলে ধরেন জাতীয় ম্যালেরিয়া নির্মূল ও এডিসবাহিত রোগ নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির ডেপুটি প্রগ্রাম ম্যানেজার ডা. আফসানা আলমগীর খান।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের ১০০টি এলাকার দুই হাজার ৯৯৯টি বাড়িতে জরিপ চালানো হয়। তাতে সর্বোচ্চ ‘বিআই’ ৪৩.৩ পাওয়া যায় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ১১ নম্বর ওয়ার্ডের কল্যাণপুর, পাইকপাড়া ও মধ্য পাইকপাড়ায়। সর্বোচ্চ বিআই ৪০ পাওয়া যায় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ১৭ নম্বর ওয়ার্ডের খিলক্ষেত, কুড়িল ও নিকুঞ্জ এলাকায়। অন্যদিকে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে সর্বোচ্চ বিআই ৪০ পাওয়া গেছে ৫১ নম্বর ওয়ার্ডের মীরহাজিরবাগ, দোলাইরপাড় ও গেণ্ডারিয়া এলাকায়। বিআই বা ‘ব্রেটু ইনডেক্স’ হলো এডিস মশার লার্ভার ঘনত্ব।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা