kalerkantho

শুক্রবার । ৭ কার্তিক ১৪২৭। ২৩ অক্টোবর ২০২০। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

এএসআইকে ‘চড় দেওয়া’ ওসি প্রত্যাহার

বরগুনা ও বামনা প্রতিনিধি   

১২ আগস্ট, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



এএসআইকে ‘চড় দেওয়া’ ওসি প্রত্যাহার

পুলিশের গুলিতে নিহত মেজর (অব.) সিনহা মোহাম্মদ রাশেদের সহযোগী সাহেদুল ইসলাম সিফাতের মুক্তির দাবিতে বরগুনার বামনায় আয়োজিত মানববন্ধন পণ্ড করার সময় এক এএসআইকে ‘চড় দেওয়া’ ওসি ইলিয়াস আলী তালুকদারকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। একই সঙ্গে তাঁর বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নিতে সুপারিশ করা হয়েছে। তিন দিনের তদন্ত শেষে ওই ওসি দোষী সাব্যস্ত হলে গতকাল মঙ্গলবার তাঁকে বামনা থানা থেকে প্রত্যাহার করা হয়।

ওসির হাতে লাঞ্ছিত হওয়ার ভিডিও চিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রচারিত হয়। এই ঘটনায় বরগুনা জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মফিজুল ইসলামকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি করে পুলিশ।

তদন্তদলের প্রধান জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মফিজুল ইসলাম বলেন, ওসির হাতে এএসআই লাঞ্ছিত হওয়ার ঘটনাটি প্রমাণিত হওয়ায় ওই ওসিকে বামনা থেকে

প্রত্যাহারসহ তাঁর বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করা হয়েছে।

জানা গেছে, গত শনিবার দুপুরে নিহত মেজর (অব.) সিনহার সহযোগী সাহেদুল ইসলাম সিফাতের গ্রামের বাড়ি বরগুনার বামনায় তাঁর মুক্তির দাবিতে শান্তিপূর্ণ মানববন্ধন করেন সহপাঠী ও স্থানীয় লোকজন। এ সময় বামনা থানার ওসি ইলিয়াস আলী তালুকদার এসে মানববন্ধনটিকে ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিপেটা শুরু করেন। এ সময় তাঁর সহকর্মী এক এএসআইকে তিনি চড় মারেন এবং গালাগাল করেন। ওসির চড় দেওয়ার দৃশ্যটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রচারিত হয়। এই ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে বরগুনা জেলা পুলিশ। তিন দিন তদন্ত শেষে ওসি ইলিয়াস আলী তালুকদারের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাঁকে বামনা থেকে প্রত্যাহার করে তাঁর বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সুপারিশ করেন তদন্ত কমিটির সদস্যরা। 

কক্সবাজারের টেকনাফে পুলিশের গুলিতে সিনহার মৃত্যুর পর গ্রেপ্তার ও কারাবন্দি সিফাতের মুক্তির দাবিতে গত শনিবার বামনায় আয়োজিত মানববন্ধন পণ্ড করার সময় কর্তব্যরত এক এএসআইকে চড় দেন ওসি ইলিয়াস।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা