kalerkantho

শুক্রবার । ৭ কার্তিক ১৪২৭। ২৩ অক্টোবর ২০২০। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

খালেদার জামিনের মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন করতে পারে পরিবার : ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৯ আগস্ট, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সাজার ছয় মাসের স্থগিতাদেশের সময়সীমা শেষ পর্যায়ে উপনীতি হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে মেয়াদ বৃদ্ধির জন্য সরকারের কাছে আবেদন জানাতে পারে তাঁর পরিবার। গতকাল শনিবার বিকেলে টেলিফোনে সাংবাদিকদের এ কথা জানান ফখরুল। তিনি বলেন, ‘সাজা স্থগিতের সময় বাড়াতে ম্যাডামের (খালেদা জিয়া) পরিবারের পক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। যেহেতু তাঁরা এর আগে আবেদন করে সরকারের সঙ্গে কথা বলে সাজা স্থগিত করিয়েছিলেন।’

কখন এই আবেদন করা হতে পারে—এমন প্রশ্নের জবাবে ফখরুল জানান, সময়মতোই পরিবারের পক্ষ থেকে এই ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে। খালেদার চিকিৎসার অবস্থা সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘ম্যাডামের চিকিৎসা যেটা চলছিল সেটাই চলছে। হাসপাতালের ডাক্তাররা যে চিকিৎসা দিয়েছিল সেটাকেই ফলোআপ করছে এখন তাঁর ব্যক্তিগত চিকিৎসকরা। এখন যতটুকু সম্ভব তাঁর বউমা (লন্ডনে অবস্থানরত বড় ছেলে তারেক রহমানের স্ত্রী ডা. জোবায়দা রহমান) আছেন, তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করে, তাঁর পরামর্শ নিয়ে ম্যাডামের চিকিৎসাটা চলছে।’

পরিবারের পক্ষ থেকে খালেদা জিয়ার ছোট ভাই শামীম ইস্কান্দর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তাঁর বোনের শারীরিক অবস্থা জানিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য মুক্তি চেয়ে আবেদন করেন। গত ২৫ মার্চ সরকার নির্বাহী আদেশে খালেদা জিয়ার সাজা ছয় মাসের জন্য স্থগিত করে মুক্তি প্রদান করে। ওই স্থগিতাদেশে বলা হয়, খালেদা জিয়া গুলশানের বাসায় থেকে চিকিৎসা নেবেন এবং তিনি দেশের বাইরে যেতে পারবেন না।

মুক্ত হওয়ার পর থেকে গুলশানের বাসভবন ‘ফিরোজা’য় থেকেই চিকিৎসা নিচ্ছেন বিএনপি প্রধান। বার্ধক্যজনিত সমস্যায় আক্রান্ত ৭৫ বছর বয়সী খালেদা জিয়া হাতে ও হাঁটুতে আর্থ্রাইটিসের ব্যথা, ডায়াবেটিক, চোখের সমস্যায় ভুগছেন। তিনি নিজে থেকে হাঁটতে পারেন না।

২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার রায়ে পাঁচ বছরের কারাবন্দি জীবন শুরু করেন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী। তাঁর বিরুদ্ধে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলা ছাড়াও আরো ৩৪টি মামলা রয়েছে, যার বেশির ভাগ এক-এগারোর সরকারের আমলে করা।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা