kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ কার্তিক ১৪২৭। ২০ অক্টোবর ২০২০। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

সরকারি কর্তার মারধরে গৃহকর্মী হাসপাতালে

পাকুন্দিয়া (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি   

৬ আগস্ট, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ঢাকার মিরপুরে সরকারি কর্মকর্তার বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করত কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ার বাগপাড়া গ্রামের সামিরা (১৪)। সেখানে নির্মম নির্যাতনের শিকার এই কিশোরী এখন কিশোরগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এ ঘটনায় গতকাল বুধবার সকালে অভিযুক্ত সরকারি কর্মকর্তা ড. মোহম্মদ মাহবুবুর রশীদ ও তাঁর স্ত্রী বিউটি আক্তারসহ তিনজনের বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। কিশোরীর দিনমজুর বাবা সেলিম মিয়া এই অভিযোগ করেছেন।

মাহবুবুর মুন্সীগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত উপপরিচালক (শস্য)। ঘটনার সময় তিনি কর্মস্থল ছেড়ে কেন মিরপুরে ছিলেন তা জানা যায়নি।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, বাগপাড়ার সামিরা ও মাহবুবুর প্রতিবেশী। সংসারে অভাব-অনটনের কারণে মাসদুয়েক আগে ঢাকার মিরপুরে মাহবুবুরের ভাড়া বাসায় গৃহকর্মীর কাজ নেয় সে। কিন্তু কিছুদিন যেতে না যেতেই তার ওপর শুরু হয় নির্যাতন। গত ৩০ জুলাই মুমূর্ষু অবস্থায় মেয়েটিকে বাগপাড়ায় নিজের বাড়িতে নিয়ে আসেন মাহবুবুর। এ সময় নির্যাতনের বিষয়টি কাউকে না জানানোর জন্য মেয়েটিকে ভয়ভীতি দেখান তিনি। পরে তিনি মোবাইল ফোনে সামিরার বাবা সেলিমকে তাঁর (মাহবুবুর) বাড়িতে আসতে বলেন। খবর পেয়ে সেলিম তাঁর বাড়িতে আসেন। এ সময় সাদা কাগজে তাঁর স্বাক্ষর রেখে দেন মাহবুবুর। পরে মেয়েকে তার বাবার হাতে তুলে দেন। বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার পর নির্যাতনের বিষয়টি মা-বাবাকে জানায় সামিরা। এর মধ্যে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা