kalerkantho

শুক্রবার । ২৩ শ্রাবণ ১৪২৭। ৭ আগস্ট  ২০২০। ১৬ জিলহজ ১৪৪১

সব নিম্ন আদালতেই আত্মসমর্পণ করতে পারবেন আসামিরা

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শুধুই ম্যাজিস্ট্রেট আদালত নয়, এখন থেকে এখতিয়ারসম্পন্ন সব অধস্তন আদালতে আত্মসমর্পণ করতে পারবেন বিভিন্ন ফৌজদারি মামলায় গ্রেপ্তার এড়াতে আত্মগোপনে থাকা আসামিরা। স্বাস্থ্যবিধি মেনে আত্মসমর্পণের এই সুযোগ দিয়ে এ বিষয়ে নির্দেশনা জারি করেছেন সুপ্রিম কোর্ট।

এ ছাড়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল, চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট/চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে নালিশি মামলা করারও সুযোগ দেওয়া হয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. আলী আকবরের স্বাক্ষরে গত শনিবার রাতে এই বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তির শর্ত অনুযায়ী, আত্মসমর্পণের বিষয়ে সুপ্রিম কোর্ট থেকে জারি করা সাত দফা এবং নালিশি মামলার ক্ষেত্রে পাঁচ দফা নিদের্শনা অনুসরণ করতে হবে। এতে বলা হয়েছে, আত্মসমর্পণ বা নালিশি মামলা করার ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যবিধি এবং শারীরিক ও সামাজিক দূরত্ব কঠোরভাবে অনুসরণ করতে হবে। পরতে হবে মাস্ক। এজলাসকক্ষে ছয়জনের বেশি উপস্থিত থাকতে পারবেন না। প্রত্যেককে কমপক্ষে ছয় ফুট শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে

হবে। আত্মসমর্পণকারী একজন আসামির পক্ষে আদালতকক্ষে সর্বোচ্চ দুজন আইনজীবী শুনানিতে অংশ নিতে পারবেন। আর নালিশি মামলা করার ক্ষেত্রে শুধু আবেদনকারী ও তাঁর আইনজীবী আদালতকক্ষে উপস্থিত থাকতে পারবেন। অভিযোগকারীকে পরীক্ষা করার পর তাঁর জবানবন্দি গ্রহণ করতে হবে। এরপর অভিযোগকারীর স্বাক্ষর গ্রহণ ও আদেশ দেবেন আদালত। অভিযোগকারী ও আইনজীবী এরপর আদালতকক্ষ ত্যাগ করবেন। এর দুই মিনিট পর পরবর্তী আবেদনকারী ও তাঁর আইনজীবী আদালতকক্ষে প্রবেশ করবেন।

করোনাভাইরাস সংক্রমণের প্রেক্ষাপটে নিয়মিত আদালত বন্ধ থাকায় গত ১১ মে থেকে ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে আদালতে আসামির জামিনের আবেদনের ওপর শুনানির ব্যবস্থা করা হলেও পলাতক আসামির আত্মসমপর্ণের কোনো সুযোগ ছিল না।

এ বিষয়ে আইনজীবীদের অব্যাহত দাবির পরিপ্রেক্ষিতে সুপ্রিম কোর্ট শুধু ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আসামির আত্মসমর্পণের বিষয়ে গত ৪ জুলাই বিজ্ঞপ্তি জারি করেন। এখন সব অধস্তন আদালতে আত্মসমর্পণ ও নালিশি মামলা করার সুযোগ সৃষ্টি করা হলো।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা