kalerkantho

শনিবার । ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭। ৮ আগস্ট  ২০২০। ১৭ জিলহজ ১৪৪১

মাদক বিক্রি করতে অস্বীকার

স্ত্রীর চোখ উপড়ে ফেললেন স্বামী

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি   

৬ জুলাই, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে মাদক বিক্রি করতে অস্বীকার করায় কাঁচি দিয়ে স্ত্রীর চোখ উপড়ে ফেলার অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। গত শনিবার গভীর রাতে কালিহাতী উপজেলার মাইস্তা দড়িপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। কালিহাতী থানার ওসি হাসান আল মামুন এবং আঁখি আক্তারের চাচা খোকন মিয়া জানান, মির্জাপুর উপজেলার বুসুন্দী গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে ফারুক হোসাইনের সঙ্গে সাত বছর আগে আঁখি আক্তারের বিয়ে হয়। তাঁদের একটি কন্যাসন্তান রয়েছে। ফারুক একসময় মাদক সেবন এবং কারবারের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন। ফারুক তাঁর স্ত্রীকেও মাদক বিক্রি করতে বলেন। এ নিয়ে তাঁদের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে আঁখি তাঁর বাবার বাড়ি চলে আসেন। পরে সালিসি বৈঠকের মাধ্যমে মীমাংসা করে আঁখিকে ফারুকের বাড়ি পাঠানো হয়। কিন্তু ফারুকের স্বভাবে পরিবর্তন আসেনি। তিনি ফের আঁখিকে মাদক বিক্রি করার  জন্য চাপ দেন। আঁখি আবারও রাজি না হলে তাঁদের সংসারে অশান্তি শুরু হয়। এক বছর আগে ফারুককে ছেড়ে গাজীপুরে গিয়ে আঁখি গার্মেন্টে চাকরি নেন। গত রমজান মাসে ফারুক গাজীপুরের বাসায় গিয়ে ছুরি দিয়ে আঁখি আক্তারকে আহত করেন। ওই ঘটনায় গাজীপুর সদর থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন আঁখি। করোনার কারণে আঁখি বাবার বাড়ি কালিহাতী উপজেলার মাইস্তা দড়িপাড়া গ্রামে চলে আসেন। শনিবার গভীর রাতে ফারুক আঁখির ঘরে প্রবেশ করেন। এ সময় কাঁচি দিয়ে আঁখির চোখে আঘাত করে তিনি পালিয়ে যান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা